জয়পুর: দোরগোড়ায় লোকসভা নির্বাচন। টানা দ্বিতীয়বার ভোটযুদ্ধে জয়লাভ করে মসনদে ফের নরেন্দ্র মোদী থাকবেন কিনা, সেটা সময়ই বলবে। কিন্তু বিরোধীরা তো চুপ করে বসে থাকার পাত্র নয়। তাই নিজেকে ‘চৌকিদার’ বলে প্রধানমন্ত্রী যতই জনমানসে নিজের ইমেজ স্বচ্ছ করার প্রয়াস চালান, রাফায়েল ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রীকে কাঠগড়ায় তুলে বিরোধী কংগ্রেস শিবিরের নির্বাচনী মঞ্চে নতুন স্লোগান ‘চৌকিদার চোর হ্যায়’।

তবে শেষমেষ রাজনীতির ময়দানেই কেবল তা সীমাবদ্ধ রইল না। উত্তাপ ছড়িয়ে ক্রিকেটে ময়দানেও এবার রব উঠল ‘চৌকিদার চোর হ্যায়’। ২৫ মার্চ জয়পুরের সোয়াই মান সিং স্টেডিয়ামে বাটলারকে মানকাড রান আউট করে শোরগোল ফেলে দিয়েছেন কিংস ইলেভেন পঞ্জাব অধিনায়ক রবিচন্দ্রন অশ্বিন। তার আগে ২৪ সেকেন্ডের একটি ঘটনার ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়তেই ভাইরাল হল সেটিও। যেখানে গ্যালারি থেকে স্পষ্ট ভেসে আসছে ‘চৌকিদার চোর হ্যায়’ রব।

আরও পড়ুন: সাত বলে সাত ছক্কায় রেকর্ড বইয়ে চাষির ছেলে

সোমবার জয়পুরের সোয়াই মান সিং স্টেডিয়ামে উত্তেজক ম্যাচে তখন ব্যাট করছেন পঞ্জাবের নিকোলাস পুরান। বল করছেন জয়দেব উনাদকাট। ১৮.২ ওভারে ৩ উইকেট খুঁইয়ে প্রীতির দল তখলেছে ১৬০ রান। গ্যালারি থেকে হঠাৎই ভেসে আসে ‘চৌকিদার চোর হ্যায়’ রব। এমনিতেই কয়েকমাস আগে বিধানসভা নির্বাচনে রাজস্থানে মসনদ খুইয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টি। রাজনীতির ময়দান ছাড়িয়ে খেলার মাঠে এই ঘটনা গেরুয়া শিবিরের কাছে যে অশনি সংকেত, তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

আরও পড়ুন: ‘অশ্বিনকে যারা সমর্থন করছেন, কোহলিকে স্টোকস মানকাড করলে তারা কী বলতেন’

প্রাক নির্বাচনী প্রচারে ‘চৌকিদার’ ট্রেন্ডে মজে বিজেপির মন্ত্রী-আমলারা। সোশ্যাল মিডিয়ায় নামের পাশে ‘চৌকিদার’ লিখছেন তারা। পালটা তাদের কটাক্ষ করে কংগ্রেস শিবিরের নির্বাচনী প্রচারের হাতিয়ার ‘চৌকিদার চোর হ্যায়’ স্লোগান। ভোটের এমন গরমাগরম আবহ এবার বাইশ গজে ঢুকে পড়া গেরুয়া শিবিরকে তো ভাবতে বাধ্য করবেই। পাশাপাশি নিখাদ ক্রিকেট অনুরাগীদের থেকে গ্যালারিতে এমন রাজনৈতিক স্লোগান কতটা বাঞ্ছিত, প্রশ্ন থাকছেই।