জেনেভা: করোনা আর মানুষে টানাটানি চলছেই। জীবন মৃত্যুর এই লড়াইতে অদৃশ্য ভাইরাস হামলায় বিশ্ব তথৈবচ।তবে আশার কথা করোনা প্রতিরোধের টিকা নিয়ে যে গবেষণা চলছে তার কয়েকটি সাফল্যের দোরগোড়ায়। সেপ্টেম্বরের শুরুতে সুখবর আসতে চলেছে বলেই বিশেষজ্ঞদের ধারণা।

২১৩টি দেশ ও অঞ্চলেএই ভাইরাস হামলা করেছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা সংস্খা (হু) জানাচ্ছে রবিবার পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তদের মধ্যে ১ কোটি ২৭ লক্ষ ২০ হাজার ১৮৭ জন সুস্থ হয়ে উঠেছেন।

ওয়ার্ল্ডোমিটার জানাচ্ছে, আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১ কোটি ৯৮ লক্ষ ২ হাজারের বেশি। ৬৩ লক্ষ ৫২ হাজার ২৬৬ জন চিকিৎসাধীন। ৬৫ হাজারের বেশি আশঙ্কাজনক।

গত বছরের ডিসেম্বরে চিনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে প্রথম দেখা দেয় করোনাভাইরাস। এর হামলায় ৭ লক্ষ ২৯ হাজার ৫৪৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। গত ১১ মার্চ করোনাভাইরাস সংকটকে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

ওয়ার্ল্ডোমিটারের হিসেবে তথ্য অনুযায়ী, করোনাভাইরাসের হামলা থেকে সুস্থ হয়েছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ২৬ লক্ষ ৩৮ হাজার ৪৭০ জন। ব্রাজিলে ২০ লক্ষ ৯৪ হাজার ২৯৩ জন। ভারতে ১৪ লক্ষ ৭৯ হাজার ৮০৪ জন।

এরপরই আসছে রাশিয়া। এখানে সুস্থ হয়েছেন ৬ লক্ষ ৯০ হাজার ২০৭ জন। দক্ষিণ আফ্রিকায় ৪ লক্ষ চার হাজার ৫৬৮ জন। চিলিতে ৩ লক্ষ ৪৪ হাজার ১৩৩ জন।

করোনা হামলায় চিন,ইরান, ইতালি, ইউরোপের অন্যান্য দেশগুলিতে বাড়ছে সুস্থ হওয়ার সংখ্যা। তবে এই ভাইরাস এখনও নিয়ন্ত্রণের বাইরে। এমনই জানিয়েছেন হু। সেই সঙ্গে চলছে টিকা এবং ওষুধ নিয়ে নিরন্তর গবেষণা।

করোনা প্রতিরোধের টিকা আবিষ্কার ঘিরে তিনটি দেশের লড়াই তুঙ্গে। এই লড়াইয়ে আছে ইংল্যান্ড, রাশিয়া ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। এছাড়াও চিনের গবেষকরা টিকা বের করেছেন বলে দাবি। ইতিমধ্যে সেটির প্রয়োগ শুরু হয়েছে। ইংল্যান্ডের অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের টিকা করোনা প্রতিরোধে কার্যকরী বলে দাবি গবেষকদের। রাশিয়া জানিয়েছে সেপ্টেম্বরে অভিনব কিছু ঘটবে।

রুশ দাবি ঘিরে তোলপাড় দুনিয়া। এর পাশাপাশি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের টিকা নিয়েও চলছে চর্চা। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, কোনও টিকা এখনও সম্পূর্ণ কার্যকর কিনা সেটা নিয়ে গবেষণা চলছে।

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা