রিয়াধ: গোল করে নতুন ক্লাবকে প্রথম ট্রফি দিলেন রোনাল্ডো। অন্যভাবে বলতে গেলে সিআরসেভেনের গোলে মরশুমের প্রথম ট্রফি এল তুরিনের ক্লাবে। বুধবার এসি মিলানকে ১-০ গোলে হারিয়ে ইতালিয়ান সুপার কাপ জিতল জুভেন্তাস। দ্বিতীয়ার্ধে দলের হয়ে জয়সূচক গোলটি করেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো।

প্রথমার্ধ গোলশূন্য থাকার পর ম্যাচের ৬১ মিনিটে জেদ্দাহ শহরের আবদুল্লাহ স্পোর্টস কমপ্লেক্সে এদিন ম্যাচের স্টোরি লিখলেন সেই সিআরসেভেন। নতুন ক্লাবে মরশুমের ট্রফি জয়ে একমাত্র গোলদাতা হিসেবে স্কোরশিটে নাম খোদাই করে রাখলেন পর্তুগিজ তারকা। কোপা ইতালিয়ার দ্বিতীয় দল হিসেবে এদিন সুপার কাপে গত মরশুমের সিরি-‘এ’ ও ইতালিয়ান কাপ বিজেতা জুভেন্তাসের মুখোমুখি হয় এসি মিলান।

আরও পড়ুন: গ্যালারিতে বসে রাফার জয় দেখলেন ‘হিটম্যান’

চলতি মরশুমেও সিরি-‘এ’তে এই মুহূর্তে শীর্ষস্থানে তুরিনের ক্লাব। দ্বিতীয়স্থানে থাকা নাপোলির থেকে পরিষ্কার ন’পয়েন্টে এগিয়ে জুভেন্তাস। এমতাবস্থায় বুধবার সৌদি আরবের মাটিতে সুপার কাপে এসি মিলানের মুখোমুখি হন রোনাল্ডোরা। জ্বরের কারণে মিলানের প্রথম একাদশে শুরু করেননি হিগুয়েন। বল পজেশন নিজেদের দখলে রেখেও প্রথমার্ধে মিলানের ক্লাবটির ডেডলক খুলতে ব্যর্থ হয় জুভেন্তাস। তবে প্রথমার্ধে সুযোগ এসেছিল দু’দলের কাছেই।

আরও পড়ুন: ফিট থাকলে সচিনকে ছুঁয়ে ফেলবে বিরাট

দ্বিতীয়ার্ধে ফের একবার রোনাল্ডোর বিশ্বস্ত মাথা ত্রাতা হয়ে দাঁড়াল জুভেন্তাসের জন্য। বিপক্ষ গোলরক্ষকের নাগাল এড়িয়ে ক্রোট তারকা পিয়ানিচের থ্রু বল ৬১ মিনিটে দুরন্ত হেডারে জালে রাখেন রোনাল্ডো। গোল হজম করে ৭০ মিনিটের মাথায় হিগুয়েনকে পরিবর্ত হিসেবে মাঠে নামিয়ে দেন মিলান কোচ। কিন্তু ৭৩ মিনিটে এমরি ক্যানের লাল কার্ড মিলানের সমস্ত আশায় জল ঢেলে দেয়।

আরও পড়ুন: জাতীয় দল থেকে সরে দাঁড়ালেন নির্ভরযোগ্য তারকা

বাকি সময়টা দশজনের মিলান আর ম্যাচে ফিরতে পারেনি। অন্যদিকে আর ব্যবধান বাড়িয়ে নিতে পারেনি জুভেন্তাসও। সবমিলিয়ে সিআরসেভেনের করা একমাত্র গোলেই ম্যাচের ভাগ্য নির্ধারণ হয়। পর্তুগিজ তারকার গোলেই অষ্টমবারের জন্য সুপার কাপ জয় নিশ্চিত করে জুভেন্তাস।