তুরিন: লিগ টেবিলের একেবারে নীচের দিকে থাকা জেনোয়ার বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে আটকে যাওয়ার উপক্রম হয়েছিল জুভেন্তাসের৷ একেবারে শেষ মুহূর্তে স্বস্তির জয় পায় ওল্ড লেডি৷ পরিত্রাতা হয়ে দেখা দেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো৷ ম্যাচের শেষ বাঁশি বাজার ঠিক আগের মুহূর্তে গোল করেন সিআর সেভেন৷ রোনাল্ডোর জয়সূচক গোলেই জেনোয়াকে ২-১ ব্যবধানে পরাজিত করে জুভেন্তাস৷ এই জয়ের সুবাদে ইন্টার মিলানকে টপকে লিগ টেবিলের শীর্ষে উঠে আসে তারা৷

রোনাল্ডো ছাড়াও ম্যাচে জুভেন্তাসের হয়ে অপর গোলটি করেন লিওনার্দো বোনুচ্চি৷ জেনোয়ার হয়ে ব্যবধান কমান আইভরি কোস্টের ফরোয়ার্ড ক্রিশ্চিয়ান কউয়ামি৷ উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, দু’দলের মোট তিন জন ফুটবলার লাল কার্ড দেখায় একসময় জুভেন্তাসকে ম্যাচ খেলতে হয় দশ জনে৷ জেনোয়াকে লড়াই চালাতে হয় ন’জন ফুটবলার নিয়ে৷

আরও পড়ুন: উইলিয়ামসের গোলে ফের জয় এটিকে’র

ম্যাচের প্রথম আধ ঘণ্টায় গোলের একাধিক সুযোগ তৈকি করে জুভেন্তাস৷ তবে তার একটিকেও জেনোয়ার জালে ঠেলতে পারেননি রোনাল্ডোরা৷ শেষমেশ ৩৬ মিনিটের মাথায় প্রতিপক্ষের গোল মুখ খুলে ফেলে জুভেন্তাস৷ বেন্তাঙ্কুরের পাস থেকে গোল করেন বোনুচ্চি৷ যদিও খুব বেশিক্ষণ লিড ধরে রাখা সম্ভব হয়নি রোনাল্ডোদের পক্ষে৷ প্রথমার্ধেই ম্যাচে সমতায় ফেরে জেনোয়া৷ ৪০ মিনিটের মাথায় আগুদেলোর পাস থেকে গোল করেন কউয়ামি৷ প্রথমার্ধের খেলা শেষ হয় ১-১ গোলের সমতায়৷

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন জেনোয়ার ফ্রান্সিসকো কাসাতা৷ ৫১ মিনিটের মাথায় ম্যাচে দ্বিতীয় বার হলুদ কার্ড দেখায় রেফারি মাঠ ছাড়ার নির্দেশ দেন তাঁকে৷ ৫৭ মিনিটে ফেডেরিকো মার্চেত্তি লাল কার্ড দেখায় ন’জনে খেলতে বাধ্য হয় জেনোয়া৷ ৮৭ মিনিটে লাল কার্ড দেখেন জুভেন্তাসের রাবিতো৷

আরও পড়ুন: থ্রিলার ম্যাচে আর্সেনালকে হারিয়ে কোয়ার্টারে লিভারপুল

৯০+২ মিনিটে রোনাল্ডো জেনোয়ার জালে বল জড়ালেও ভিএআরের সাহায্য নিয়ে গোল বাতিল করেনব রেফারি৷ টেলিভিশন রি-প্লে’তে দেখা যায় অফসাইডে ছিলেন রোনাল্ডো৷ যদিও ৯০+৬ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে সেই রোনাল্ডোই জুভেন্তাসের জয় নিশ্চিত করেন৷

এই জয়ের ফলে ১০ ম্যাচে ২৬ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলের শীর্ষে উঠে আসে জুভেন্তাস৷ ১০ ম্যাচে ২৫ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে নেমে যেতে হয় ইন্টার মিলানকে৷