মুম্বই: হিন্দু ধর্ম নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করে বিপাকে বলিউড অভিনেত্রী উর্মিলা মাতণ্ডকর৷ একটি টেলিভিশন শো’তে উপস্থিত হয়ে হিন্দু ধর্ম সবথেকে হিংসাত্মক হয়ে উঠেছে বলে মন্তব্য করেন তিনি৷ এই মন্তব্য হিন্দুদের ভাবাবেগকে আঘাত করেছে এই অভিযোগে কংগ্রেস প্রার্থীর বিরুদ্ধে ফৌজদারি ধারায় অভিযোগ দায়ের করেন বিজেপি নেতা সুরেশ নাকহুয়া৷

সদ্য কংগ্রেসে যোগ দিয়েছেন একসময় বলিউড কাঁপানো অভিনেত্রী৷ মুম্বই নর্থ কেন্দ্র থেকে লোকসভা আসনের প্রার্থী হয়েছেন৷ কংগ্রেসে যোগ দেওয়ার একদিন পরেই কেন্দ্রের নরেন্দ্র মোদী সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দাগেন অভিনেত্রী৷ জানান, পাঁচ বছরে দেশে অসহিষ্ণুতা বেড়েছে৷ হিংসার বাতাবরণ ছড়িয়েছে৷

উর্মিলা বলেছিলেন, বর্তমান সময়ে সব কিছুতে ও সবার প্রতি হিংসা এবং অসহিষ্ণুতা অনেক বেড়ে গিয়েছে৷ যা হচ্ছে তা মেনে নেওয়া যায় না৷ তিনি আরও জানান, নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে হিন্দুধর্ম সবথেকে বেশি হিংসাত্মক হয়ে উঠেছে। তিনি বলেন, যে ধর্ম সবথেকে বেশি শান্তিপ্রিয় ছিল, সেই ধর্মই আজ হিংসাত্মক হয়ে উঠেছে। তিনি বলেন, ‘নরেন্দ্র মোদী সরকারের আমলে এটাই আমি সবথেকে বেশি ঘৃণা করি।’

তাঁর আরও অভিযোগ, দেশে মত প্রকাশের কোনও স্বাধীনতা নেই। দেশে হিংসাই একমাত্র পথ হয়ে উঠেছে বলে মন্তব্য করেন তিনি। তিনি কংগ্রেসে যোগ দেওয়ার পর থেকেই তাঁকে নিয়ে শুরু হয় ট্রোল। বছর কয়েক আগে এক কাশ্মীরি ব্যবসায়ীকে বিয়ে করেন উর্মিলা। তিনি কংগ্রেসে যোগ দেওয়ার পরই অনেক বলতে থাকেন তিনি নাকি ধর্মান্তরিত হয়েছেন। ফেসবুকে ট্রোলও শুরু হয়ে যায়।

উর্মিলার স্বামী কাশ্মীরি মডেল ও ব্যবসায়ী ৷ নাম মহসিন আখতর মীর ৷ স্বামীর পরিচয় নিয়েই বারবার কটাক্ষের মুখের পড়তে হচ্ছে উর্মিলাকে৷ এমনকী উইকিপিডিয়ায় উর্মিলার নাম বদলে কেউ বা কারা করে দিয়েছে মরিয়াম আখতার মীর, বলা হয়েছে মহসিনের সঙ্গে নিকাহ-র পর বদলেছে তাঁর নাম৷ উর্মিলার ধর্মও পাল্টে মুসলিম করে দেওয়া হয়েছে৷ কংগ্রেসের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে যে উর্মিলার জনপ্রিয়তায় ভয় পেয়েছে বিজেপি৷ যেকারণে এই সব অপপ্রচার চালানো হচ্ছে৷