নয়াদিল্লি: নাথুরাম গডসে স্বাধীন ভারতের প্রথম হিন্দু সন্ত্রাসবাদী মন্তব্য করে বিপাকে অভিনেতা কমল হাসান৷ হিন্দু ভাবাবেগে আঘাত করেছেন এই অভিযোগ উঠেছে তাঁর বিরুদ্ধে৷ তাই মঙ্গলবার দিল্লির পাতিয়ালা হাউস কোর্টে মাক্কাল নিধি মইয়াম দলের নেতার বিরুদ্ধে ফৌজদারি ধারায় অভিযোগ দায়ের করা হল৷

এর আগে সোমবার অভিনেতার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবিতে নির্বাচন কমিশনের কাছে নালিশ জানাতে ছোটে বিজেপি৷ গেরুয়া শিবিরের তরফে জানানো হয়, রাজনৈতিক ফায়দা পেতে ইচ্ছাকৃতভাবে মুসলিম অধ্যুষিত এলাকায় গিয়ে ওই মন্তব্য করেন কমল হাসান৷ এই মন্তব্য জনপ্রতিনিধি আইনের ১২৩(৩) ধারার সঙ্গে মোটেও খাপ খায় না৷ তাঁর মন্তব্য হিন্দুদের ভাবাবেগে আঘাত করেছে৷

আরও পড়ুন: ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে ইস্তফা জেট এয়ারওয়েজের ডেপুটি সিইও’র

দক্ষিণী সুপারস্টারের মন্তব্যের বিরোধীতা করেছেন অভিনেতা বিবেক ওবেরয়ও৷ জানান, সিনেমা ও সন্ত্রাসের কোনও ধর্ম হয় না৷ ট্যুইটে বিবেক লেখেন, ‘‘আপনি অনেক উঁচু মানের শিল্পী৷ শিল্প ও কলার যেমন ধর্ম হয় না তেমন সন্ত্রাসেরও হয় না৷ আপনি বলেছেন গোডসে জঙ্গি ছিল৷ তাহলে কেন হিন্দু শব্দের প্রয়োগ করলেন? আপনি মুসলিম অধ্যুষিত এলাকায় ভোট চাইতে গিয়েছেন বলে এমনটা বলেননি তো?’’

রবিবার তামিলনাড়ুর আভারুকুরিচি বিধানসভা উপনির্বাচনের প্রচার করেন কমল হাসান৷ সেখানেই তিনি বিতর্কিত মন্তব্যটি করে বসেন৷ বলেন, ‘‘স্বাধীন ভারতের প্রথম সন্ত্রাসবাদী একজন হিন্দু৷ তার নাম হল নাথুরাম গডসে৷’’ পরে সভায় তিনি বলেন, ‘‘এখানে মুসলিম ভোট বেশি৷ তাই মনে হতেই পারে আমি ভোটের জন্য একথা বলছি৷ কিন্তু একেবারেই তা নয়৷ আমি এটা মহত্মা গান্ধীর মূর্তির সামনে বলছি।’’ দাবি করেন অভিনেতা থেকে নেতা হওয়া কমল হাসান৷

আরও পড়ুন: প্রিয়াঙ্কার কনভয়ে মোদী স্লোগান, সরস উত্তর রাজীব তনয়ার

১৯৪৮ সালের ৩০শে জানুয়ারি দিল্লির ‘বিড়লা হাউস’-এ বিকেলের প্রার্থনায় যাওয়ার সময়ে মহাত্মা গান্ধীকে সামনে থেকে গুলি চালিয়ে হত্যা করে নাথুরাম গডসে৷ দিল্লির লাল কেল্লায় গান্ধী হত্যা মামলার বিচার চলাকালীন গডসে নিজেও এই হত্যার কথা স্বীকার করে নেন৷ দেশভাগের জন্য গান্ধী-ই দায়ী বলে মনে করতে তিনি৷ সেই বিশ্বাস থেকেই এই খুন বলে জানান গডসে৷ ১৯৪৯ সালের ১৫ই নভেম্বর গডসের ফাঁসি হয় পাঞ্জাবের আম্বালা জেলে।