নয়াদিল্লি: কয়েকমাস আগে আগ্রায় তাজমহল দেখতে এসে একদল দুস্কৃতির হাতে নিগৃহীত হয়েছিলেন এক সুইস দম্পতি৷ পর্যটকদের উপর সেই হামলার ঘটনায় দেশজুড়ে শোরগোল পড়ে যায়৷ নাগরিক সমাজের অভিযোগ, এই ঘটনা চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দেয় বিদেশি অতিথিদের জন্য ভারত খুব একটা নিরাপদ জায়গা নয়৷ লজ্জাজনক হলেও এই দাবিকেই শিলমোহর দিল ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ড ব্যুরো(এনসিআরবি)৷

কি বলছে এনসিআরবি? ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ড ব্যুরোর তথ্য অনুযায়ী ভারতে ক্রমশ বিদেশিদের উপর হামলার ঘটনা বাড়ছে৷ যথারীতি সেই তালিকার একেবারে শীর্ষে দিল্লি৷ তথ্য বলছে ২০১৬ সালে সারা দেশের মধ্যে দিল্লিতে ৪০ শতাংশের মতো বিদেশিদের উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে৷ এর মধ্যে রয়েছে নিগ্রহ, খুন, ধর্ষণ, চুরি ও ছিনতাইয়ের মতো ঘটনা৷

গতবছর রাজধানীতে ১২ জন বিদেশি পর্যটক খুন হয়েছেন৷ এছাড়া ৩৮টি শ্লীলতাহানি ও ১৯টি ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের হয়েছে৷ বাকি অভিযোগ গুলি চুরি ও ছিনতাই৷ গতবছর সারা দেশে মোট ৩৮২টি অভিযোগ দায়ের হয়েছিল৷ যার মধ্যে ১৫৪টি কেস দায়ের হয়েছে দিল্লির বিভিন্ন থানায়৷ দিল্লির ঠিক পরেই আছে মহারাষ্ট্র৷ গত বছর বাণিজ্যনগরীতে ৩৮টি ঘটনার অভিযোগ দায়ের হয়েছে৷ পডুচেরী ও গোয়া থেকে যথাক্রমে ৩৩ ও ২২টি বিদেশিদের উপর হামলার অভিযোগ দায়ের হয়েছে৷

অন্যদিকে দেশের মধ্যে অস্থিরতম জায়গা জম্মু কাশ্মীর বিদেশিদের জন্য অন্যতম নিরাপদ জায়গা৷ কাশ্মীর ছাড়াও নিরাপদ রাজ্যের তালিকায় রয়েছে ছত্তিশগড়, মণিপুর, মেঘালয়, মিজোরাম, সিকিম ও উত্তরাখন্ড৷
উল্টোদিকে ভারতে বিদেশিদের অপরাধের সংখ্যা নেহাত কম নয়৷ গতবছর বিদেশিদের বিরুদ্ধে দেশের বিভিন্ন থানায় ১২২৬টি কেস দায়ের করা হয়৷ সেই তালিকায় শীর্ষে রয়েছে পশ্চিমবঙ্গ৷ রাজ্যে মোট ৫২০টি কেস তাদের বিরুদ্ধে দায়ের করা হয়েছে৷

পশ্চিমবঙ্গের পরেই রয়েছে কর্ণাটক, গোয়া ও তামিলনাড়ু৷ এই রাজ্যগুলিতে বিদেশিদের বিরুদ্ধে যথাক্রমে ৯১, ৮০ ও ৬৪টি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে৷ এদের বিরুদ্ধে মাদক পাচারের অভিযোগ সবচেয়ে বেশি৷ এছাড়া অস্ত্র আইন, প্রতারণা, খুন ধর্ষণের মতো অভিযোগ তো আছেই৷ আবার অন্যদিকে দমন দিউ, লাক্ষাদ্বীপ, আন্দামান নিকোবর দ্বীপপুঞ্জ ও দাদরা নগর হাভেলী থেকে এরকম কোন অভিযোগ সামনে আসেনি৷