ফাইল ছবি

বেঙ্গালুরুঃ  যৌন মিলনের আগে কন্ডোম ব্যবহার করতে বলাটাই কাল হল। খদ্দেরের হাতে মর্মান্তিক মৃত্যু যৌনকর্মীর। একেবারে গলা কেটে নৃশংসভাবে খুন করা হল তাঁকে। ভয়াবহ এই ঘটনায় কার্যত শিউরে উঠছে বেঙ্গালুরুর রাজাজিনগরের বাসিন্দারা। খুনের অভিযোগে ইতিমধ্যেই অভিযুক্ত ওই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। অভিযুক্ত যুবকের নাম মুকুন্দ বলে জানা গিয়েছে। তবে এই ঘটনায় তীব্র আতঙ্ক ছড়িয়েছে।

জানা গিয়েছে, গত কয়েকদিন আগে বেঙ্গালুরুর ম্যাজেস্টিক বাসস্ট্যান্ডে মুকুন্দের সঙ্গে আলাপ হয় এক যৌনকর্মীর। ওই মহিলা আড়াই হাজার টাকার বিনিময়ে তাকে মিলনের প্রস্তাব দেন। শেষমেশ দেড় হাজারে রফা হয়। কথা মতো আগেই কিছু টাকা দিতে হবে। সেই মতো অগ্রিম ৫০০ টাকা ওই যৌনকর্মীকে দেয় মুকুন্দ। এরপর রাজাজিনগরে মহিলার বাড়িতে গিয়ে উপস্থিত হয় তারা। সেখানে গিয়েই বাকি এক হাজার টাকা মিটিয়ে দেয় মুকুন্দ। কিন্তু সমস্যার সূত্রপাত হয় এরপর থেকেই। সুরক্ষিত মিলন করতে মুকুন্দকে কন্ডোম ব্যবহারের পরামর্শ দেয় ওই মহিলা। আর তাতেই সমস্যার সূত্রপাত।

কন্ডোম ছাড়াই যৌন মিলন করতে চায় মুকুন্দ। কিন্তু তাতে সায় দেয়নি ওই মহিলা। বেশ কিছুক্ষণ ধরে এই বিষয়টি নিয়ে তর্ক-বিতর্ক চলে দুজনের মধ্যে। এক সময়ে মুকুন্দ ওই যৌনকর্মীকে টাকা ফিরিয়ে দেওয়ার প্রস্তাবও দেয়। কিন্তু ওই মহিলা তা দিতে চায় না। আর তাতেই মেজাজ হারায় ব্যক্তি। টাকা ফেরত না দিলে মহিলাকে খুনের হুমকিও দেয় সে। তাতেও মহিলা উচ্চবাচ্য না করায় তাঁর গলা কেটে খুন করে মুকুন্দ। ঘটনার পরই চম্পট দেয় অভিযুক্ত।

এদিকে স্কুল থেকে বাড়ি ফিরে মায়ের রক্তাক্ত মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখে ছেলে। সঙ্গে সঙ্গে পুলিশকে খবর দেয় সে। পুলিশ এসে মৃতদেহ উদ্ধার করে। জানা যায়, পালানোর সময় মহিলার গলার চেন ও দু’টি মোবাইলও নিয়ে যায় সে। এরপর সিসিটিভি ফুটেজ এবং মহিলার ফোনের লোকেশনের সূত্র ধরে মুকুন্দকে গ্রেফতার করে পুলিশ।