মিলান: প্রায় ৩৫ হাজারের মানুষের মৃত্যু। মারণ ভাইরাস তছনছ করে দিয়েছে দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা। মৃত্যুমিছিলের দুঃস্বপ্ন কাটিয়ে ধীরে-ধীরে ছন্দে ফিরছে ইতালি। আর ছন্দে ফিরতে ফুটবলের চাইতে মোক্ষম আর কিছু বোধহয় হয় না। তাই আগামী ২০ জুন করোনা পরবর্তী সময় দেশে চালু হয়ে যাচ্ছে প্রিমিয়র ডিভিশন ফুটিবল লিগ। তাঁর আগে কোপা ইতালিয়া সেমিফাইনালের মধ্যে দিয়ে ফুটবল ফিরল ইতালিতে।

আর করোনা পরবর্তী সময় মাঠে নেমেই পেনাল্টি মিস করলেন সিআর সেভেন। তিন মাস পর দেশের মাটিতে ফুটবল ফেরায় টগবগ করে ফুটছিলেন ফুটবলাররা। কিন্তু গ্যালারি দর্শকশূন্য থাকায় গোটা বিষয়টি কেমন যেন নিষ্প্রাণ মনে হচ্ছিল। গ্যালারির মতোই নিষ্প্রাণ হয়ে রইল ম্যাচ। ঘরের মাঠে দশ জনের এসি মিলানের বিরুদ্ধে গোল তুলে নিতে পারল না জুভেন্তাস। গোলশূন্য অবস্থায় নিষ্পত্তি হল জুভেন্তাস-এসি মিলান দ্বিতীয় লেগের সেমি।

তবে সেমিফাইনালে প্রথম লেগের ফলাফল জুভেন্তাসকে পৌঁছে দিল কোপা ইতালিয়ার ফাইনালে। এসি মিলানের ঘরের মাঠে প্রথম পর্বের সেমিফাইনাল শেষ হয়েছিল ১-১ গোলে। অর্থাৎ, অ্যাওয়ে গোলের নিরিখে ফাইনালে পৌঁছে গেল মৌরিজিও সারির দল। তবে নিষ্প্রাণ ম্যাচেও শিরোনাম হয়ে রইলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। তবে সেটা নেতিবাচক ইঙ্গিতে। ম্যাচের ১৫ মিনিটেই এদিন এগিয়ে যেতে পারত তুরিনের ক্লাবটি। কিন্তু স্পটকিক থেকে রোনাল্ডোর শট পোস্টে লেগে প্রতিহত হয়। গোটা ম্যাচে দলের পারফরম্যান্স বুধবার ফাইনালের আগে চিন্তায় রাখবে সারিকে।

শনিবার অপর সেমিফাইনালে নাপোলি মুখোমুখি হবে ইন্টার মিলানের। প্রথম পর্বে ইন্টারের মাঠে গিয়ে ১-০ গোলে তাদের হারিয়েছিল নাপোলি। অর্থাৎ ঘরে মাঠে বেশ এগিয়ে থেকেই অ্যান্তোনিও কোন্তের ছেলেদের মুখোমুখি হবে নাপোলি। জয়ী দল আগামী বুধবার রোমে মেগা ফাইনালে মুখোমুখি হবে জুভেন্তাসের। এরপর আগামী শনিবার করোনা পরবর্তী সময় ফের বল গড়াবে সিরি-এ’তে।

স্বাভাবিকভাবেই কোপা ইতালিয়ায় শিরোপা জয় সিরি-এ শুরুর আগে দারুণভাবে উদ্বুদ্ধ করবে চ্যাম্পিয়ন দলকে। মাঠে ফিরে জুভেন্তাস ডিফেন্ডার লিওনার্দো বোনুচ্চি এদিন বলেন, ‘৯০ দিন মাঠে ফিরে দর্শকহীন স্টেডিয়ামের সামনে খেলা খুবই অস্বাভাবিক এবং কঠিন কাজ। তবে কালো অধ্যায় কাটিয়ে ধীরে-ধীরে ছন্দে ফিরছে গোটা পৃথিবী। ফুটবল ফেরায় ঘরে বসেও কিছুটা হলেও আনন্দ করতে পারছেন অনুরাগীরা।’

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ