ফাইল ছবি

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: গত ১৬ এপ্রিল মাঝেরহাট ব্রিজের একটি অংশ সারাই করতে টেন্ডার নোটিশ প্রকাশ করে রাজ্য সরকার৷ তবে শুধু মাঝেরহাট ব্রিজই নয়, ওই নোটিশে তারাতলা উড়ালপুল, ডায়মন্ডহারবার রোডের সারাইয়ের কথাও উল্লেখ করা হয়৷ একটি ব্রিজ, একটি উড়ালপুল এবং একটি রাস্তার উপরের অংশ বা সারফেস সারাই করতে মোট খরচ দেখানো হয়েছে ১৬ লক্ষ ১৮ হাজার ১৮১ টাকা৷

পড়ুন:মাঝেরহাট ব্রিজ বিপর্যয়ের কারণ খুঁজবে হাইপাওয়ার কমিটি

সমস্ত বিষয়টি নিয়ে সিপিএম সাংসদ মহম্মদ সেলিম বলেন, ‘‘এক কিলোমিটার ২৮১ মিটার রাস্তা তৈরি করতে মাত্র ১৬ কোটি টাকা? মন্ত্রী (রাজ্যের পূর্ত মন্ত্রী) জানেন না রক্ষণাবেক্ষণটাও দায়িত্বের মধ্যে পড়ে৷’’ উল্লেখ্য, তারাতলা উড়ালপুল, মাঝেরহাট ব্রিজ এবং ডায়মন্ডহারবার রোডের ১৩ কিলোমিটার ২০৫ মিটার অংশ থেকে ১৪ কিলোমিটার ৪৮৬ অংশের সারাই করাতে হবে ৩০ দিনের মধ্যে, তা নোটিশে লেখা রয়েছে৷

আরও পড়ুন:ব্রিজ ভেঙে বেহাল বেহালার পুজো! মাথায় হাত উদ্যোক্তাদের

পিডাব্লুবি বা পূর্ত দপ্তরের আলিপুর ডিভিশনে থেকে ডারি করা অনলাইন টেন্ডার নোটিশটিতে বলা আছে কাজ হবে বেহালা ডিভিশনে৷বুধবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মাঝেরহাট ব্রিজের ভেঙে পড়া অংশ দেখতে যান৷ ইতিমধ্যেই মুখ্য সচিব মলয় দের নেতৃত্বে বিষয়টির তদন্ত হবে, তা মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন৷ এদিন ক্ষতিপূরণের কথাও ঘোষণা করেছেন তিনি৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।