কলকাতা: দলের লাইন থেকে বেরোতে পারল না সিপিএম। পশ্চিমবঙ্গ থেকে সীতারাম ইয়েচুরিকে রাজ্যসভায় পাঠানো হচ্ছে না। রাজ্য নেতৃত্বের আবেদনে সাড়া দিল না কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। শনিবার সিপিএম পলিটব্যুরোর বৈঠকে ভোটাভুটিতে ইয়েচুরিকে রাজ্যসভায পাঠানোর প্রস্তাব খারিজ হয়ে গেল।

আগামী ২৬ মার্চ রাজ্যসভায় পশ্চিমবঙ্গের পাঁচটি আসনে ভোট নেওয়া হবে। বাংলা থেকে সিপিএম সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরিকে কংগ্রেসের সমর্থন নিয়ে রাজ্যসভায় পাঠানোর প্রস্তাব দেওয়া হয় কেন্দ্রীয় নেতৃত্বকে। আলিমুদ্দিন স্ট্রিটের সেই প্রস্তাব পত্রপাঠ খারিজ হয়ে গেল এ কে গোপালন ভবনে।

রাজ্যসভা নির্বাচনে কংগ্রেসের সমর্থন নিয়ে সীতারাম ইয়েচুরিকে সংসদে পাঠানোর প্রস্তাব দিয়েছিল আলিমুদ্দিন স্ট্রিট। ইয়েচুরির নাম চূড়ান্ত করে তা বিবেচনার জন্য দলের পলিটব্যুরোতে পাঠানো হয়েছিল। শনিবার বঙ্গ সিপিএমের সেই প্রস্তাব পলিটব্যুরোর ভোটাভুটিতে খারিজ হয়ে গিয়েছে।

সীতারাম ইয়েচুরিকে রাজ্যসভার প্রার্থী করা হলে কংগ্রেসের তরফে তা মেনে নিতে কোনও অসুবিধা নেই বলে আগেই জানিয়েছিল কংগ্রেস হাইকম্য়ান্ড। এমনকী লোকসভার কংগ্রেস নেতা তথা বহরমপুরের সাংসদ নিজে ইয়েচুরিকে রাজ্যসভায় আনার ব্যাপারে তৎপর হয়েছিলেন। রাজ্য সিপিএম শীর্ষ নেতৃত্বের সঙ্গে এব্যাপারে প্রদেশ কংগ্রেস নেতৃত্বের এখাধিকবার কথাও হয়েছিল।

এমনকী সংসদে ইয়েচুরি এলে বিজেপি বিরোধিতায় বাড়তি শক্তি মিলবে বলেও আশাবাদী ছিলেন খএাদ সনিয়া গান্ধীও। কংগ্রেস সূত্রে খবর, ইয়েচুরিকে কংগ্রেসের সমর্থনে রাজ্যসভায় জিতিয়ে আনার ব্যাপারে দলের নেতাদের সঙ্গে আগে আলোচনাও সেরে রেখেছিলেন সনিয়া-রাহুলরা।

কিন্তু তাল কাটল পলিটব্যুরোতে। ইয়েচুরি নিজেও প্রকাশ্যে কিছু না বললেও দল চাইলে রাজ্যসভায় যেতে তাঁরও সেভাবে কোনও আপত্তি ছিল না। তবে বিধি-বাম। আপাতত ইয়েচুরির ফের সংসদে পা রাখা এখন কার্যত অসম্ভব। এই পরিস্থিতিতে বিকল্প নাম হিসেবে সেলিমকে নিয়ে সিপিএমের অন্দরে জোর চর্চা চলছে। যদিও প্রদেশ কংগ্রেসের একাংশের সেলিমের রাজ্যসভায় যাওয়ার ব্যাপারে আপত্তি রয়েছে।

আগামী ২৬ মার্চ পশ্চিমবঙ্গের পাঁচ আসন-সহ রাজ্যসভার মোট ৫৫টি আসনে নির্বাচন হতে চলেছে। রাজ্যসভার নির্বাচনে মনোনয়ন জমা দেওয়ার শেষ দিন ১৩ মার্চ। শনিবার ‌রাজ্যসভা নির্বাচন নিয়ে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্রর সঙ্গে বামফ্রন্টের চেয়ারম্যান বিমান বসুর আলোচনা হয়েছে।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ