আগরতলা: ফের রাজনৈতিক সন্ত্রাসের অভিযোগ ঘিরে সরগরম ত্রিপুরা৷ আবারও আক্রান্ত বিরোধীরা৷ এবার খোদ পুলিশ ও কেন্দ্রীয় বাহিনীর সামনে আক্রান্ত হলেন সিপিএম প্রার্থী ও প্রাক্তন মন্ত্রী৷ ঘটনা পশ্চিম ত্রিপুরা লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত গান্ধীগ্রাম৷ অভিযোগ, রক্ষীদের উপস্থিতিতেই প্রার্থীর সঙ্গে থাকা কয়েকজনকে গাড়ি থেকে টেনে নামিয়ে মারধর করা হয়েছে৷ ভাঙচুর করা হয়েছে গাড়ি৷

সিপিএমের দাবি, হামলায় জখম হয়েছেন তাদের এক কর্মী৷ তার নাম উত্তম সাহা৷ তাঁর চিকিৎসা চলছে হাসপাতালে৷ আরও অভিযোগ, নিরাপত্তারক্ষীদের সামনে এই হামলা হওয়ায় প্রশ্ন উঠছে ভোটারদের নিরাপত্তা নিয়েও৷

রবিবার পশ্চিম ত্রিপুরা লোকসভা আসনের বাম প্রার্থী তথা বিদায়ী সাংসদ শংকর প্রসাদ দত্ত প্রচারে গিয়েছিলেন৷ জিরানিয়ার গান্ধীগ্রাম এলাকায় তাঁর গাড়ি পৌঁছতেই শুরু হয় ঝামেলা৷ অভিযোগ, স্থানীয় বিজেপি কর্মীরা গাড়ি ঘিরে ধরে৷ তারপর পুলিশ ও কেন্দ্রীয় বাহিনীর সামনেই শুরু হয় তাণ্ডব৷ সেই ভিডিও ফুটেজ ছড়িয়ে পড়েছে৷ ঘটনার জেরে উত্তপ্ত হতে শুরু করেছে আগরতলার রাজনৈতিক মহল৷

ত্রিপুরায় গত বিধানসভা নির্বাচনের পর থেকেই রাজনৈতিক হামলা ও সংঘর্ষ লেগেই রয়েছে৷ সরকার পরিবর্তন হওয়ার পর রাজ্যের সর্বত্র আক্রান্ত হয়েছেন বিরোধী বামেরা৷ রবিবার এই প্রসঙ্গ তুলে ধরে আগরতলা প্রেসক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলনে রাজ্য বামফ্রন্টের আহ্বায়ক বিজন ধর জানান, প্রার্থীরা আক্রান্ত হলে ভোট কীরকম হতে পারে সেটা নিয়েই প্রশ্ন থাকছে৷ পরে দলীয় প্রার্থীর উপর হামলার ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক গৌতম দাস৷

ফাইল ছবি

লোকসভা নির্বাচনে ত্রিপুরার দুটি আসনেই প্রার্থী দিয়েছে বামেরা৷ দুটিতেই তারা গতবারের বিজয়ী৷ গত বিধানসভা নির্বাচনে ক্ষমতায় এসেছে বিজেপি ও উপজাতি ‘বিচ্ছিন্নতাবাদী’ সংগঠন আইপিএফটি জোট৷ এবার লোকসভা নির্বাচনেও এই জোট আলাদা হয়ে দুটি কেন্দ্রেই প্রার্থী দিয়েছে৷ পাশাপাশি কংগ্রেস ও আরও কিছু উপজাতি সংগঠন মিলিতভাবে পৃথক লড়াই করছে৷ সম্প্রতি বিজেপির সহ সভাপতির পদ ছেড়ে ফের কংগ্রেসে ফিরে গিয়েছেন হেভিওয়েট নেতা সুবল ভৌমিক৷ কংগ্রেসের প্রদেশ সভাপতি রাজা প্রদ্যোত কিশোর দেববর্মা জানিয়েছেন, অচিরেই সরকারের কয়েকজন মন্ত্রী ফের কংগ্রেসে ফিরবেন৷