জলপাইগুড়িঃ ভারত এবং বাংলাদেশ সীমান্তরক্ষী বাহিনীর নজর এড়িয়ে ফের গরু পাচার। এবার বিহার থেকে সড়ক পথে বাংলা হয়ে বাংলাদেশে গরু পাচারের ছক। আর সেই ছক ভেস্তে দিল পুলিশ। যা কিনা বড়সড় সাফল্য হিসাবেই দেখছেন পুলিশ আধিকারিকরা।

জানা গিয়েছে, বিহার থেকে বাংলাদেশে পাচারের পথে ২৭টি গরু উদ্ধার করেছে জলপাইগুড়ি কোতোয়ালি থানার পুলিশ। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে জলপাইগুড়ির অসম মোড় এলাকায় ৩১ নম্বর জাতীয় সড়ক থেকে একটি লরিকে আটক করে। গোটা গাড়িটি ঢাকা অবস্থায় ছিল। আর তা দেখে পুলিশের সন্দেহ হওয়াতে লরিটিকে আটক করেন পুলিশ আধিকারিকরা।

সেই লরিটিকে ভালো করে খতিয়ে দেখতেই চক্ষুচড়ক অবস্থা হয় কর্তব্যরত পুলিশ আধিকারিকদের। দেখা যায় অবৈধভাবে প্রচুর গরু রাখা হয়েছে সেখানে। কোথায় গরুগুলিকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে সেই সংক্রান্ত কোনও তথ্য লরির চালক দিতে পারেননি। তবে পুলিশ আধিকারিকরা জানতে পেরেছেন যে, বিহার থেকে গরুগুলিকে বাংলাদেশে পাচারের জন্যে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। ইতিমধ্যে ঘটনায় লরির চালক সহ মোট দুজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। উদ্ধার করা হয়েছে সব গরুগুলিকে।

জলপাইগুড়ি কোতোয়ালি থানার অফিসার জানিয়েছেন, বিহার থেকে শিলিগুড়ি ও রাজগঞ্জ হয়ে লরি ভর্তি ওই গরুগুলোকে বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী মেখলিগঞ্জ এলাকায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। গোপন খবরের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে গরুগুলোকে উদ্ধার করেন তাঁরা। গ্রেফতার করা হয়েছে বিহারের কিশানগঞ্জের বাসিন্দা আবদুল সালাম ও মহম্মদ সাহাবুদ্দিনকে। ধৃতদের দফায় দফায় জেরা করা হচ্ছে। পাচারের মূল চক্রীকে ধরতে এই জেরা করা হচ্ছে।