স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: আইসিএসই ও আইএসসির বাকি থাকা পরীক্ষায় বসতে গেলে করোনা নেগেটিভ রিপোর্ট জমা দিতে হবে। এমনই নির্দেশিকা দিল কলকাতার একটি নামী ইংরেজি মাধ্যম স্কুল।

কলকাতার সেন্ট অগাস্টিন’স ডে স্কুলের তরফে স্কুলের ওয়েবসাইটে একটি নোটিশ দেওয়া হয়েছে। সেখানে লেখা আছে, “যদি আপনাদের ছেলে – মেয়েরা বাকি পরীক্ষার দিতে চায়, তাহলে তাদের নিয়ে প্রথমে কোভিড টেস্ট করাতে যান। তারপর তাদের করোনা নেগেটিভ রিপোর্ট এনে স্কুলে জমা দিন। তবেই পরীক্ষায় বসতে দেওয়া হবে। এতে পরীক্ষায় বসা অন্য ছাত্র–ছাত্রীদের সংক্রমণের সম্ভাবনা অনেক কমে যাবে।”

এই প্রসঙ্গে স্কুলের প্রিন্সিপাল আর এস গ্যাসপার জানিয়েছেন, “এই সিদ্ধান্ত নেওয়া খুবই জরুরি ছিল। কারণ এতে অন্য ছাত্র – ছাত্রী ও শিক্ষক–শিক্ষিকাদের মধ্যে সংক্রমণের সম্ভাবনা অনেক কমে যাবে। কারণ স্কুলটি কন্টেইনমেন্ট জোনে অবস্থিত।”

আইসিএসই ও আইএসসি-র বাকি পরীক্ষাগুলো নেওয়ার ক্ষেত্রে ইতিমধ্যেই অভিভাবকদের কাছে দুটি প্রস্তাব দিয়েছে বোর্ড। বোর্ডের তরফে নির্দেশিকা জারি করে জানানো হয়েছে, প্রথমত মে মাসের প্রকাশিত সূচি অনুযায়ী, জুলাই মাসের নির্ধারিত দিনে স্কুলে গিয়ে পরীক্ষা দিতে পারেন। দ্বিতীয়ত, স্কুলে এসে পরীক্ষা না দিয়ে ওই বিষয়গুলির ইন্টার্নাল অ্যাসেসমেন্ট বা প্রি-বোর্ড পরীক্ষায় পাওয়া নম্বরের ভিত্তিতে চূড়ান্ত নম্বর দেওয়া হবে। জুলাই মাসের ১ থেকে ১৪ তারিখের মধ্যে স্থগিত হয়ে যাওয়া বাকি পরীক্ষা নেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে।

প্রসঙ্গত, করোনা ভাইরাস সংক্রমণ এবং তার জেরে চলা লকডাউনের জন্য মার্চ মাসে আইসিএসই বোর্ড দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষা স্থগিত করে। সিবিএসই বোর্ডের তরফে জুলাই মাসে পরীক্ষা নেওয়ার সূচি ঘোষণা করার পরপরই আইসিএসই বোর্ডের তরফেও জুলাই মাসে পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করা হয়। জুলাই মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকেই আইএসসি ও আইসিএসই-র বাকি পরীক্ষাগুলি নেওয়ার জন্য বিস্তারিত সূচি মে মাসে দিয়ে দেওয়া হয় বোর্ডের তরফে।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ