কলকাতা: রাজ্যে গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে করোনা আক্রান্ত ৩৬৮ জন। ফলে এই পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা মোট ৬৮৭৬ জন৷ বৃহস্পতিবার রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিনে প্রকাশ, বাংলায় নতুন করে ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। ফলে মৃতের সংখ্যা বেড়ে হল ৩৫৫ জন। এর মধ্যে কো মর্বিডিটির কারণে মৃত্যু হয়েছে ৭২ জনের। তবে সক্রিয় আক্রান্তের সংখ্যা ৩৭৫৩ জন৷

নতুন করে যে ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে, তাদের মধ্যে কলকাতারই ৫ জন৷ ফলে শহরে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ২৩৪ জনে৷ এদের মধ্যে কো মর্বিডিটির কারণে মৃত্যু হয়েছে ৫২ জনের৷ হাওড়ার নতুন করে ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে৷ এর ফলে সেখানে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৪২ জন৷ এবং উত্তর ২৪ পরগনার নতুন করে ২ জনকে নিয়ে মৃতের সংখ্যাটা ৪৭৷

এই তিন জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা হল- কলকাতায় গত ২৪ ঘন্টায় আক্রান্ত ৯৪ জন৷ শহরে এই পর্যন্ত আক্রান্ত ২,৪৮৮ জন৷ হাওড়ায় নতুন করে আক্রান্ত ৫০ জন,মোট ১২৬৪ জন৷ উত্তর ২৪ পরগনায় একদিনে আক্রান্ত ৪১ জন,মোট ৯১০ জন৷ গত ২৪ ঘন্টায় একজনও হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাননি৷ সারা রাজ্যে উত্তর দিনাজপুর, ঝাড়গ্রাম ছাড়া বাকি সব জেলাতেই নতুন করে আক্রান্তের খবর পাওয়া গিয়েছে৷ অর্থাৎ কলকাতাসহ ২৩ জেলার ২১ জেলাতেই বাড়ল আক্রান্তের সংখ্যা৷

রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিনের তথ্য অনুযায়ী, বুধবার থেকে বৃহস্পতিবার সকাল ৯ টা পর্যন্ত সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১৮৮ জন৷ ফলে এই পর্যন্ত সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছেন ২৭৬৮ জন৷ এর মধ্যে কলকাতার সংখ্যাটা ২৬৷ গতকাল কলকাতার একজনও হাসপাতাল থেকে ছাড়া না পাওয়ায় উদ্বেগ বাড়ছিল৷ নতুন করে ৯৬০৬ টি টেস্ট হয়েছে৷ গতকাল এই সংখ্যাটা ছিল ৯,৪৯৯৷

তবে এই পর্যন্ত মোট টেস্ট হয়েছে ২ লক্ষ ৪১ হাজার ৮৩১ জন৷ গতকাল ছিল ২ লক্ষ ৩২ হাজার ২২৫ জন৷ বর্তমানে রাজ্যে সরকারি ও বেসরকারি মিলিয়ে ৪২টি পরীক্ষাগারে পরীক্ষা করা হচ্ছে।বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে ৩,৭৫৩ জনের৷ রাজ্যের মোট ৬৯ টি কোভিড হাসপাতলে ৮৭৮৫ টি বেড রয়েছে ।

আইসিইউ বেড আছে ৯২০টি। ভেন্টিলেটর রয়েছে ৩৯২টি। বর্তমানে ৫৮২ টি সরকারি কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে আছেন ২০ হাজার ৬৬২ জন৷ গতকাল এই সংখ্যাটা ছিল ১৮ হাজার ৫২৫ জনে৷ বর্তমানে হোম কোয়ারেন্টাইনে আছেন ১ লক্ষ ৪৮ হাজার ৩৫৯ জন৷

মঙ্গলবারের রাজ্য সরকারের তথ্য বিগত দিনের সব রেকর্ড ভেঙে দিয়েছিল৷ অর্থাৎ বাংলায় একদিনে সর্বোচ্চ আক্রান্ত ছিল ৩৯৬ জন৷ সোমবার থেকে মঙ্গলবার সকাল ৯ টা পর্যন্ত রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৬১৬৮ জনে৷ এর মধ্যে সক্রিয় আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৩৪২৩ জনে৷

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।