ইসলামাবাদ: ক্রমেই পাকিস্তানে জটিল হচ্ছে করোনা পরিস্থিতি। একাধিক জায়গা তে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। ইতিমধ্যে পাকিস্তানে মোট আক্রান্তের সংখ্যা পৌঁছে গিয়েছে আড়াই লক্ষের কাছাকাছি। কিন্তু এই পরস্থিতিতে সাহায্য করার জন্য পাকিস্তানকে ১০০ টি ভেন্টিলেটর দিল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। যার জেরে চিকিৎসার ক্ষেত্রে যথেষ্ট সুবিধা হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

মার্কিন দূতাবাসের তরফে জানানো হয়েছে আন্তর্জাতিক উন্নয়নের খাতিরে মার্কিন প্রেসিডেন্টের তরফে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আর সেই কারণেই আমেরিকার তরফে পাকিস্তানকে এই ১০০ টি ভেন্টিলেটর দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। জানা গিয়েছে গত ২ জুলাই ওই সকল ভেন্টিলেটর পৌঁছে গিয়েছিল করাচিতে। আর সেখান থেকে তা দেওয়া হয়েছিল একাধিক হাসপাতালে। যাতে রোগীদের চিকিৎসার ক্ষেত্রে কোন অসুবিধা না হয়। দুতানাসের তরফে জানানো হয়েছে পাকিস্তানে এই মহামারীর সময়ে প্রয়োজনীয়তার খাতিরে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের তরফ থেকে এই সিদ্ধ্যান্ত নেওয়া হয়েছে।

ওই সকল ভেন্টিলেটর প্রস্তুত করা হয়েছে আমেরিকাতে। আর তাতে রয়েছে উন্নত প্রযুক্তি। যার ফলে চিকিৎসার ক্ষেত্রে সুবিধা হবে চিকিৎসকদের। সেই কারণেই পাকিস্তানে পাঠানো হয়েছে ওই উন্নত ১০০ টি ভেন্টিলেটর। আর ওই সকল ভেন্টিলেটর গুলি খুব সহজেই ব্যবহার করা যাবে বলেও জানানো হয়েছে। ইতিমধ্যেই করোনা মহামারী প্রতিরোধ করার জন্য আমেরিকার সঙ্গে পাকিস্তানের চুক্তি সম্পন্ন হয়েছে। যার ফলে প্রয়োজনীয় সুবিধা আমেরিকা থেকে পেতে পারবে পাকিস্তান। মার্কিন দূতাবাসের তরফে জান্নাও হয়েছে পাকিস্তান এবং আমেরিকার এই নয়া সম্পর্ক যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ। এর ফলে পাকিস্তানের চিকিৎসা ক্ষেত্রে অনেকটা সাহায্য করতে পারবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।

ক্রমেই পাকিস্তানে বাড়ছে মৃতের সংখ্যা। এখনও পর্যন্ত মোট মৃতের সংখ্যা সাড়ে চার হাজারের বেশি। তবে স্বাস্থ্য দফতরের তরফে জানানো হয়েছে ক্রমেই পাকিস্তানে বাড়ছে সুস্থ হয়ে ওঠার সংখ্যা। যার জেরে আশার আলো দেখছেন পাক স্বাস্থ্য কর্মী থেকে শুরু করে চিকিৎসকেরা। রোগীদের সুস্থ করতে আপ্রাণ চেষ্টা করে চলেছেন তারা।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ