নয়াদিল্লি : করোনার বছর পূর্তিতেও স্বস্তি নেই। মারণ ব্যাধি বধে বাজারে ভ্যাক্সিন চলে আসলেও সেভাবে দেখা যাচ্ছে না কোনও আশার আলো। বরং দিন যত যাচ্ছে ততই উদ্বেগ বাড়িয়ে গোটা বিশ্বেই ফের মাথাচাড়া দিয়ে বাড়ছে সংক্রমণের হার। করোনা সংক্রমণের গ্রাফচিত্র ঊর্ধ্বমুখী এদেশেও। হু-হু করে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। সেই সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃতের সংখ্যাও।
আর এই অবস্থায় ফের লকডাউনের পথে হাঁটবে নাকি সরকার?  এই প্রশ্ন যখন সবার মাথায় ঘুরছে ঠিক তখনই মাক্স পড়ে বাইরে বেরোনোর জন্য জনগণকে সতর্কবার্তা দিচ্ছে গুগল।
করোনা থেকে বাঁচতে সবার মাক্স পরা জরুরি। এই সময় সামাজিক দূরত্বও বজায় রাখা একান্ত আবশ্যক। আর ‘ডুডলের’ মাধ্যমে সাধারণ মানুষকে যেন এই বার্তায় দিচ্ছে গুগল। বছরের বিভিন্ন সময়ে বিশেষ কোনও দিনে বা কোনও স্মরণীয় ব্যক্তির জন্মদিন অথবা মৃত্যুবার্ষিকী উদযাপনে বা তাঁকে শ্রদ্ধা জানাতে গুগল ডুডলকে বিশেষ সাজে দেখা যায়।
মঙ্গলবার তেমনই সকাল থেকে নানা কাজে গুগল সার্চ ইঞ্জিনে চোখ রাখলে ডুডলের ছয়টি লেটার বা প্রতিটি বর্ণকে মাক্স পরানো হয়েছে। শুধু তাই নয় ‘Google’ এর ‘L’ অক্ষরটিকে ইঞ্জেকশন সিরিঞ্জ হিসেবে দেখানো হয়েছে।  যেন এই বার্তায় দেওয়া হচ্ছে, আমাদের জীবনে মাক্স এখনও গুরুত্বপূর্ণ। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখুন। মাক্স পড়ুন জীবন বাঁচান।
যদিও গুগল ডুডলের এইসব ছোটো ছোটো কার্টুন, ভিডিও ক্লিপিংসগুলো ক্ষণিকের হলেও তা জনমানসে বিশেষ বার্তা দিয়ে যায়। এমনকি কোনও বিশেষ দিনের কথা আপনি ভুলে গেলেও সার্চ ইঞ্জিন গুগল কখনই তা ভোলে না।
এর আগেও ২০১৪ সালে গুগল প্রায় দু হাজারেরও বেশি আন্তর্জাতিক ডুডল প্রকাশ করেছিল। বিভিন্ন আঞ্চলিক ভাষায় এই ডুডলের সংখ্যা ২০১৯ সালে চার হাজারেরও বেশি ছাড়িয়ে গিয়েছে। ফলে সার্চ ইঞ্জিন হিসেবে গোটা বিশ্বেই ক্রমশ জনপ্রিয়তা বাড়ছে গুগল ডুডলের।
অন্যদিকে, ভারতে শুরু হয়ে গিয়েছে  করোনার দ্বিতীয় ঢেউ। রাজধানীতে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনার সংক্রমণ। সরকারি হাসপাতালে বাড়ছে রোগী সংখ্যা। ফলে এবার করোনা রোগীদের জন্যে বেসরকারি হাসপাতালে ৩০ শতাংশ বেড সংরক্ষণের নির্দেশিকা জারি করেছে দিল্লি সরকার।
দিল্লি স্বাস্থ্য দফতর থেকে জানানো হয়েছে, যে সমস্ত বেসরকারি হাসপাতালের বেড সংখ্যা ১০০ এর বেশি সেই সমস্ত হাসপাতালগুলোতে ৩০ শতাংশ বেড এবং আইসিইউ সংরক্ষণ করতে হবে করোনা রোগীদের জন্যে। এই আদেশের পর ১০০ এর বেশি শয্যাযুক্ত ৫৪ টি বেসকারি হাসপাতালের বেড সংখ্যা ১,৮৪৪ থেকে বাড়িয়ে করা হয়েছে ৪,৪২২ টি। আইসিইউ বেডের সংখ্যা ৬৩৮ থেকে বেড়ে ১,৩৫৭ করা হয়েছে। দিল্লি সরকার সমস্ত বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে নির্দেশ দিয়েছে যে, হাসপাতালের সমস্ত আপডেট সরকারি পোর্টালে জানাতে হবে।

কয়েক সপ্তাহ ধরে রাজধানী দিল্লির করোনা সংক্রমণ বাড়তে শুরু করেছে। টানা চার মাসের রেকর্ড ভেঙে রবিবার দিল্লির করোনা সংক্রমণ ৪ হাজার পার করেছিল। পরিসংখ্যান অনুযায়ী গত ২৪ ঘণ্টায় দিল্লিতে করোনায় আক্রান্ত হয়েছে ৩ হাজার ৫৪৮ জন। মারণ ভাইরাসের কামড়ে মৃত্যু হয়েছে ১৫ জনের। বর্তমানে দিল্লিতে এক্টিভ কেসের সংখ্যা ১৪ হাজার ৫৮৯। এবং সুস্থ হয়ে বাড়ি গিয়েছে ২ হাজার ৯৩৬ জন।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।