স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: আরও বিপাকে ভারতী ঘোষ৷ এবার তাঁর বিরুদ্ধে জারি হল গ্রেফতারি পরোয়ানা৷ শুক্রবার পশ্চিম মেদিনীপুরের ঘাটাল মহকুমা আদালত থেকে ওই গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হয় বলে সূত্র মারফত জানা গিয়েছে৷

সিআইডির একটি সূত্র থেকে জানা গিয়েছে, তাদের তরফেই আদালতে এ নিয়ে আবেদন করা হয়েছিল৷ আদালত সেই আবেদনে সাড়া দিয়েছে৷ একই সঙ্গে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হয়েছে পশ্চিম মেদিনীপুরের পুলিশ সুপার থাকাকালীন ভারতীর নিরাপত্তারক্ষী সুজিত মণ্ডলের বিরুদ্ধেও৷

আরও পড়ুন: ভারতী ঘনিষ্ঠ দুই পুলিশ অফিসার গ্রেফতার

পশ্চিম মেদিনীপুরের দাসপুরের এক স্বর্ণ ব্যবসায়ীর কাছ থেকে তোলাবাজির অভিযোগকে কেন্দ্র করে এমনতিই চাপে রয়েছেন একদা মমতা-ঘনিষ্ঠ প্রাক্তন এই আইপিএস৷ কলকাতায় তাঁর একাধিক বাড়িতে তল্লাশি চালিয়েছে সিআইডি৷ উদ্ধার হয়েছে নগদ টাকা ও বিদেশি মদ৷  শুক্রবার ভারতী ঘনিষ্ঠ দু’জন পুলিশ আধিকারিককে গ্রেফতারও করেছে৷ ভারতীর স্বামী এমএভি রাজুকে একাধিকবার পুলিশ হাজিরা দিতে বললেও তিনি হাজিরা দেননি৷

ফলে ক্রমাগত ভারতী ঘোষের উপই চাপ বাড়ছিল৷ প্রথম দিকে তিনি অডিও বার্তায় রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেও পরে আর কোনও প্রতিক্রিয়া দেননি৷ আর এই পরিস্থিতির মধ্যেই শুক্রবার ঘাটাল মহকুমা আদালতে ভারতী ও তাঁর ঘনিষ্ঠ পুলিশকর্মী সুজিত মণ্ডলের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করার আবেদন জানায়৷ সেই আবেদন মঞ্জুর করে আদালত৷

আরও পড়ুন: ভারতী ঘোষের ঘনিষ্ঠ আরও এক পুলিশ অফিসারের বাড়িতে সিআইডি তল্লাশি

সিআইডি সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই গ্রেফতারি পরোয়ানা নিয়ে ভিনরাজ্যে তল্লাশি অভিযানে নামবেন তদন্তকারীরা৷ তাদের ধারণা, উত্তর ভারতের কোথাও আত্মগোপন করে রয়েছেন ভারতী ও সুজিত৷ ফলে দ্রুত তাঁদের হেফাজতে নিতে চাইছে সিআইডি৷ সেই কারণেই ওই গ্রেফতারি পরোয়ানা নিয়ে ইতিমধ্যেই সিআইডির একটি বিশেষ দল বাংলার বাইরে রওনা দিয়েছে বলে জানা গিয়েছে৷