স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: সারদা মামলায় প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার মামলার রায়দান স্থগিত রাখল হাইকোর্ট। ফলে এখনই রাজীব কুমারকে গ্রেফতার করতে পারবে না সিবিআই।

প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার মামলার শুনানি শেষ হল বুধবার। শুনানি শেষে রায়দান স্থগিত রাখলেন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি মধুমতী মিত্র। পরবর্তী রায়দান না হওয়া পর্যন্ত রাজীব কুমারের অন্তর্বর্তী স্থগিতাদেশ জারি থাকবে। আগামী ১৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত রাজীবের বিরুদ্ধে সিবিআই এর কঠোর পদক্ষেপের ওপর স্থগিতাদেশের মেয়াদ বাড়িয়েছিল আদালত।

উল্লেখ্য, সারদা মামলায় সিবিআইয়ের পাঠানো নোটিশকে চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন প্রাক্তন কমিশনার রাজীব কুমার। দীর্ঘদিন ধরে সেই মামলার শুনানি চলছিল। বুধবার সেই মামলার শুনানি শেষ হয়।

এর আগে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ আনে সিবিআই৷ সিবিআইয়ের আইনজীবী আদালতে প্রশ্ন তোলেন রাজীব কুমারের বিরুদ্ধে তদন্তে রাজ্য সরকারের ভূমিকা নিয়ে৷ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারকে কাঠগড়ায় তুলে সিবিআইয়ের প্রশ্ন রাজীব কুমারের জিজ্ঞাসাবাদে বারবার কেন বাধা দিচ্ছে রাজ্য়?

সিবিআইয়ের আইনজীবীরা আদালতে রাজ্যের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ তোলেন৷ সিবিআইয়ের দাবি প্রতি পদক্ষেপে রাজীব কুমার তদন্তে বাধা দিয়েছে রাজ্য়৷ তদন্তে বাধা দিয়েছে রাজ্য পুলিশও৷

সিবিআই আদালতে জানায়, নেতা মন্ত্রীদের গ্রেফতারিতে বাধা দেননি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্য়ায়৷ তাহলে রাজীব কুমারকে জিজ্ঞাসাবাদে বাধা কেন? সিবিআইয়ের অভিযোগ রাজীব কুমারকে ডেকে পাঠালেই আইন শৃঙ্খলার দোহাই দিচ্ছে রাজ্য়৷ সেটা বারবার কেন ঘটছে?

যদিও কিছু দিন আগে কলকাতা পুলিশের প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার কে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সিবিআই দেখে পাঠিয়েছিল। সেদিন সিআইডি দফতর থেকে কয়েকজন অফিসার রাজীব কুমারের একটি চিঠি নিয়ে আসেন। তাতে কয়েক দিন সময় চাওয়া হয়েছিল। তখন সিবিআই আধিকারিকরা পরিষ্কারভাবে জানিয়ে দেন সময় দেওয়া যাবে না। সেই বার্তা রাজীব কুমার এর কাছে পৌঁছানোর কাছে পৌঁছানোর এর কাছে পৌঁছানোর কাছে পৌঁছানোর পরে, ওইদিনই প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার সশরীরে সল্টলেক সিজিও কমপ্লেক্সের সিবিআই দফতরে হাজির হতে বাধ্য হয়েছিলেন।