স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা : বাড়ি থেকে উদ্ধার হওয়া শিশু কন্যাদের সঠিক পরিচয় না দিতে পেরে বিপাকে এক দম্পতি৷ ঘটনাটি ঘটেছে দমদম থানা এলাকায়৷ রবিবার রাতে দক্ষিণ দমদম এলাকার অমরপল্লি এলাকায় একটি আবাসনে কয়েক মাস আগে এক দম্পতি কন্যাসন্তানকে দত্তক নেয় বলে জানা আবাসিকরা৷ তবে তাদের গাফিলতিতে মৃত্যু হয় শিশুটির বলে অভিযোগ৷ এমনকি শিশুটির মৃত্যুর খবর গোপন করার চেষ্টা করেছিল এই দম্পতি বলেও অভিযোগ আবাসিকদের৷

সেই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই তার ঘরে গত রবিবার ফের দুই কন্যা শিশুকে দেখতে পান এই অভিযুক্ত দম্পতির ঘরে৷ তাদের বয়স ২ ও ৬ ছয় মাস বলে আবাসিকদের জানায় এই দম্পতি৷ তবে কীভাবে তাদের কাছে এই শিশুরা আসল তার উত্তর পেয়ে রীতিমতো চমকে যান আবাসিকরা৷

এই আবাসনের বাসিন্দা সম্পা ভদ্র জানান,”এই দম্পতি জনিয়েছে ছয়মাসের কন্যা সন্তান কে তারা হরিদ্বার থেকে এই দম্পতির কাছ থেকে নিয়ে এসেছেন৷ আড়াই মাসের শিশুটিকে সারোগেসির মাধ্যমে তারা পেয়েছেন বলে জানান৷ কিন্তু তাদের কথার উপযুক্ত প্রমাণ তারা দেখাতে পারেনি বলে আমাদের সন্দেহ হয়৷ একটি শিশুর মৃত্যুর রেষ কাটতে না কাটতে দুটি কন্যা সন্তানের অভিভাবকত্ব নিয়ে যথেষ্ট সন্দেহ হয় অন্য আবাসিকদেরও৷” ঘটনার পিছনে রহস্যের গন্ধ পেয়ে পুলিশের কাছে দ্বারস্ত হন আবাসিকরা৷

অভিযোগ পেয়ে এই দম্পতি কে তলব করেন পুলিশ আধিকারিকেরা৷ পুলিশ সুত্রে জানা গিয়েছে তাদের কাছেও এই দম্পতি কোনও প্রমাণ দিতে পারেনি৷ তবে পুলিশ কর্তারা প্রমাণ দেওয়ার জন্য এই দম্পতি কে তিন দিনের সময় দেন৷ পুলিশের এই ভুমিকায় প্রশ্ন তুলেছেন অভিযোগকারিরা৷ উদ্ধার হওয়া দুই কন্যা সন্তান কে জেলা শিশুকল্যান সমিতির নির্দেশ মতো হোমে রাখা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে৷ তবে ঘটনার পর থেকে এখনও আবাসনে ফেরেনি এই দম্পতি বলেই জানা গিয়েছে৷ ঘটনার দেরে রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়৷