বিশেষ প্রতিবেদন; আর মাত্র কয়েক ঘন্টার অপেক্ষা। ইতিহাস তৈরি করে মহাকাশে প্রদক্ষিণ করতে চলেছে বাংলাদেশের প্রথম স্যাটেলাইট বঙ্গবন্ধু। ১০ই মে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কেনেডি স্পেস সেন্টার থেকে উৎক্ষেপণ করা হবে বঙ্গবন্ধু- ১ স্যাটেলাইট। এই ঘটনা বাংলাদেশের কাছে ইতিহাস। শুধু তাই নয়, অন্তত্য গর্বেরও বটে। স্বাভাবিকভাবেই পদ্মাপারের বাংলা মুখিয়ে ঐতিহাসিক সেই মুহূর্তটির জন্যে। মুখিয়ে আছে গঙ্গাপারের বাংলা তথা ভারতও।

আরও পড়ুন- ২০১৮ বাংলাদেশ: সোনালি মুহূর্তে বাঙালির উপগ্রহ প্রদক্ষিণ করবে বিশ্ব

ইতিমধ্যে উৎক্ষেপণ কেন্দ্রে পৌঁছে গিয়েছেন বাংলাদেশ সরকারের উচ্চপদস্থ আধিকারিকরা। ঢাকায় বসে ঐতিহাসিক ঘটনা দেখবেন খোদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বাংলাদেশের প্রথম কৃত্রিম উপগ্রহ প্রকল্প হল বঙ্গবন্ধু-১ । এর উৎক্ষেপনের খরচ ৩ হাজার ২৪৩ কোটি টাকা৷ এর মধ্যে বাংলাদেশ সরকার ১ হাজার ৫৫৫ কোটি টাকা নিজেদের তহবিল থেকে এবং বাকি ১ হাজার ৬৮৮ কোটি টাকা বিদেশি সংস্থার কাছ থেকে ঋণ হিসাবে নেওয়া হবে।

একনজরে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ (BS-1) বাংলাদেশের প্রথম ভূমি থেকে উৎক্ষেপণ করা যোগাযোগ উপগ্রহ। এটি বাংলাদেশের ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রকের অধীনে

বঙ্গবন্ধু-১ কৃত্রিম উপগ্রহটি ১১৯.১° ডিগ্রী পূর্ব দ্রাঘিমাতে স্থাপিত হবে। এটিকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে নামকরণ করা হয়। বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ ১৬০০ মেগাহার্টজ ক্ষমতাসম্পন্ন মোট ৪০টি কু এবং সি-ব্যান্ড ট্রান্সপন্ডার বহন করবে এবং এটির আয়ু ১৫ বছর। বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইট প্রকল্প বাস্তবায়নে মোট খরচ হচ্ছে ২ হাজার ৭৬৫ কোটি টাকা। এর মধ্যে ১ হাজার ৩৫৮ কোটি টাকা ঋণ হিসেবে দিচ্ছে বহুজাতিক ব্যাংক এইচএসবিসি।