বেজিং: নিয়ন্ত্রণ হারিয়েছে চিনের স্পেস স্টেশন। বর্তমানে ভেসে বেড়াচ্ছে সেটি। আগামী বছরের মার্চ মাসে পৃথিবীতে আছড়ে পড়বে সেটি। তবে, ঠিক কোথায় পড়বে তা নিয়ে অন্ধকারেই ছিলেন বিজ্ঞানীরা। এবার হিসেব করে বের করা হয়েছে যে কোথায় পড়তে পারে সাড়ে আট টনের ওই স্পেস স্টেশন। জানা গিয়েছে, তিয়াংগং-ং নামে ওই স্পেস স্টেশন পড়তে পারে স্পেন, ইতালি, তুরস্ক কিংবা ভারতে। আমেরিকার কোনও জায়গায় পড়ার সম্ভাবনাও উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না।

মহাকাশে নিজেদের শক্তি প্রদর্শন করতে ২০১১ সালে প্রথমবার এই মহাকাশ স্টেশনটি উৎক্ষেপণ করেছিল চিন। বেশ কয়েকবার এটি মানুষসহ এবং মানুষ ছাড়াও মহাকাশ পরিভ্রমণ করেছে। ২০১২ সালে চিনের নভশ্চর লিউ ইয়াংকে নিয়ে মহাকাশ পাড়ি দেয়।

কয়েক মাসের পর্যবেক্ষণের পর ২০১৬ সালে চিনা কর্মকর্তারা জানান, মহাকাশ স্টেশনটির নিয়ন্ত্রণ হারিয়েছে তারা। সেসময় তারা জানায় ২০১৭ বা ২০১৮ সাল নাগাদ এটি পৃথিবীতে আছড়ে পড়তে পারে। চিনা স্পেস এজেন্সি জাতিসংঘকে জানায় ‘তিয়ানঅং-১’ চলবি বছরের অক্টোবর থেকে ২০১৮ এর এপ্রিলের মধ্যে পৃথিবীতে আছড়ে পড়বে।

সম্প্রতি বিজ্ঞানীরা দেখেছেন এটি পৃথিবীর কাছাকাছি এসে খুব দ্রুত নিচে নামছে। হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের জ্যেতিপদার্থবিদ জোনাথন ম্যাকডোয়েল বলেছেন, মহাকাশ স্টেশনটি ৩০০ কিলোমিটারেরও কম বেগে পৃথিবীকে প্রদক্ষিণ করছে আর তা আরও ঘনীভূত বায়ুমণ্ডলে প্রবেশ করেছে। তিনি বলেন, আশা করছি ২০১৭ এর শেষ বা ২০১৮ সালের শুরুর দিকে পৃথিবীতে পৌঁছবে। ধারণা করা হচ্ছে মহাকাশ স্টেশনটির বেশিরভাগ অংশ পৃথিবীর বায়ুমন্ডলে পৌঁছলে ভস্মীভূত হয়ে যাবে।