নয়াদিল্লি: দেশজুড়ে আসন্ন উৎসবের মরশুম। উৎসবের মরশুমে দেশে করোনার সংক্রমণ বিপজন্নক পরিস্থিতি তৈরি করতে পারে। আগেই এব্যাপারে সতর্ক করে দিয়েছিলেন বিশেষজ্ঞরা। এবার তাঁদের আশঙ্কা, উৎসবের মরশুমে আমেরিকাকেও পিছনে ফেলে করোনা আক্রান্তের নিরিখে শীর্ষে উঠে আসতে পারে ভারত।

এখনও পর্যন্ত গোটা বিশ্বে করোনা সংক্রমণের নিরিখে শীর্ষে রয়েছে আমেরিকা। শুক্রবার পর্যন্ত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৮২ লক্ষ ২৪ হাজার ৫৫২।

আমেরিকায় করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২ লক্ষ ২২ হাজার ৮৪০। প্রতিদিন হাজার-হাজার মানুষ নতুন করে সেদেশে করোনায় সংক্রমিত হচ্ছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় আমেরিকায় নতুন ৫৯ হাজারের বেশি মানুষ করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।

উল্টোদিকে, ভারতেও এখনও করোনার চোখ রাঙানি জারি। যদিও গত কয়েকদিনে দৈনিক সংক্রমণ খানিকটা কম। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ভারতে ৬৩ হাজারের বেশি মানুষ করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। সব মিলিয়ে শুক্রবার পর্যন্ত দেশে নোভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৭৩ লক্ষ ৮৩ হাজার ১০৪। দেশে করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১ লক্ষ ১২ হাজার ৩৫৭।

সামনেই ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে উৎসবের মরশুম শুরু হবে। এই উৎসবকে কেন্দ্র করে নতুন করে রাজ্যে-রাজ্যে সংক্রমণের ‘সুনামি’ বয়ে যেতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা। উৎসবকে কেন্দ্র করে বাড়তি সতর্ক থাকতে পরামর্শ দিয়েছেন খোদ প্রধানমন্ত্রীও।

দিন কয়েক আগেই দেশবাসীকে সতর্ক করে তিনি বলেছেন, ‘‘দেশে করোনার বিপদ রয়েছে। সবাইকে বলছি সতর্ক থাকুন।’’ কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধনও একইভাবে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন। উৎসবে ভিড় এড়ানোর পরামর্শ দিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।