শিলিগুড়িঃ  উত্তরবঙ্গের আরও চারজনের শরীরে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ পাওয়া গিয়েছে। বুধবার নবান্নে এমনটাই জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। করোনা ভাইরাসে মৃত কালিম্পংয়ে মহিলার পরিবারেরই এরা সদস্য বলে জানা যাচ্ছে।

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ওই পরিবারের লোকজনকে কোয়ারেন্টাইনে যেতে চাইছিল না প্রথমে। গত সোমবার সকালে কালিম্পংয়ের ওই মহিলা উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজে মারা যান। যদিও ওই মহিলার করোনা ভাইরাসের আক্রান্ত হওয়ার রিপোর্ট আসার পরেই গোটা পরিবারকে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়। শুধু পরিবারের সদস্যদেরই নয়, পরিচারিকা এবং অন্যান্যভাবে যারা তাঁর সংস্পর্শে এসেছিলেন তাঁদের কালিম্পং এবং জলপাইগুড়ির রানিনগর কোয়ারান্টিনে নিয়ে যাওয়া হয়।

মঙ্গলবার সকালে রানিনগর কোয়ারান্টিন থেকে সাতজনকে উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে এসে আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। এর মধ্যে চারজনের এবং ওই মহিলা সেবক রোডের যে ডায়াগনস্টিক সেন্টারে চিকিত্সা করিয়েছিলেন সেখানকার দুই কর্মীর লালারসের নমুনা উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজের ভাইরাস রিসার্ট অ্যান্ড ডায়াগনেস্টিক ল্যাবরেটরিতে (ভিআরডিএল) পাঠানো পরীক্ষা করা হয়৷ যদিও এখনও পর্যন্ত তার রিপোর্ট সেই বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানানো হয়নি। তবে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, কালিম্পংয়ের আরও চারজনের শরীরে করোনার সংক্রমণ পাওয়া গিয়েছে।