ওয়াশিংটন: করোনার করাল গ্রাসে আতঙ্কিত গোটা দুনিয়া। মারণ এই ভাইরাসের কালবেলা চলছে যেন জগত জুড়ে। চারিদিকে শুধুই মানুষের ত্রাহি ত্রাহি রব। কবে মিলবে মারণ এই ব্যাধি থেকে নিস্তার জানা যায়নি তা এখনও। পৃথিবীর এই কঠিন অসুখে একটি চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট প্রকাশ করেছেন মার্কিন গবেষক গন। আর এই রিপোর্টেই উঠে এসেছে করোনাভাইরাস সম্পর্কিত নতুন এক তথ্য। যা নতুন করে মারণ এই ভাইরাসের মোকাবিলায় ভাবাতে শুরু করেছে বিশেষজ্ঞদের।

মার্কিন গবেষক অ্যান্টনি ফাউসিই নতুন করোনা নিয়ে নতুন এই তথ্য সামনে এনেছেন। আমেরিকার ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অফ হেলথ ইনফেকশন অ্যান্ড ডিসিসের প্রধান অ্যান্টনি জানিয়েছেন, করোনা শুধুমাএ জ্বর, গলা খুশখুশ বা শ্বাস কষ্ট থেকেই ছড়ায় না। মারণ এই ভাইরাস ছড়াতে পারে, হাঁচি-কাশি, এমনকি সাধারণ শ্বাস প্রশ্বাসের মাধ্যমেও। শনিবার ফক্স নিউজের কাছে সাক্ষাৎকারে তিনি আরও বলেন, “করোনা মোকাবিলায় সকলের মাক্স ব্যবহারের একদমই দরকার নেই।

কারন, একজন সুস্থ মানুষ মাক্স ব্যবহার করলে শ্বাস প্রশ্বাসের ক্ষেত্রে মুখের ভিতরের অদৃশ্য জীবাণু এই মাক্সের ভিতরেই জড়িয়ে থাকে। ফলে তা থেকে আরও মারাত্মক কিছু ঘটতে পারে। সুতরাং মাক্স শুধুমাএ অসুস্থ এবং বয়স্ক লোকজনদেরই পড়া উচিত।”

গত ১ এপ্রিল ফাউসির এই বক্তব্যকে চিঠি মারফত হোয়াইট হাউসে প্রেরণ করা হয়। সেখানে মার্কিন প্রেসিডেন্টের সামনে নয়া এই তথ্যটি উত্থাপন করা হয়। রিপোর্টে আরও বলা হয়েছে, বর্তমানে এই ভাইরাসটির ট্রান্সমিশন ঘটছে। যারফলে কোনও অসুস্থ ব্যক্তি হাঁচি-কাশি দিলে তার এক মিটারের মধ্যে দ্রুত এই ভাইরাসটির ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়।

শুধু তাই নয়,’নিউ ইংল্যান্ড জার্নাল অফ মেডিসিনের’ গবেষণায় উঠে এসেছে আরও একটি নতুন তথ্য। এই জার্নালে মার্কিন গবেষকরা জানাচ্ছেন, মারণ এই অদৃশ্য ভাইরাস খালি বাতাসে প্রায় ৩ ঘন্টা ভেসে থাকতে পারে। যা খুবই উদ্বেগ জনক আমাদের সকলের জন্য। এছাড়াও করোনা আক্রান্ত রোগীদের হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডেও থাকতে পারে করোনাভাইরাস। ফলে মারণ এই ভাইরাসের মোকাবিলায় এখন একটাই পথ খোলা রয়েছে আমাদের সামনে। আর সেটি হল যতটা সম্ভব ঘরে ও বাইরে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা।

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV