বেঙ্গালুরু: পাঁচ রাজ্য থেকে কোনও ব্যাক্তিকে প্রবেশ করতে দেবে না রাজ্য সরকার, বৃহস্পতিবার এমন সিদ্ধান্ত জানানো হয়েছে কর্ণাটক সরকারের তরফে।

যে পাঁচ রাজ্য থেকে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হবে না তা হল- মহারাষ্ট্র, গুজরাত, তামিলনাডু, মধ্যপ্রদেশ এবং রাজস্থান। করোনা ভাইরাস সংক্রমনে লাগাম টানতেই এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে ক্যাবিনেটের তরফে।

রাজ্য সরকারের তরফে জানানো হয়েছে, কোনও ট্রেন, বিমান এই পাঁচটি রাজ্য থেকে ঢুকতে অনুমতি দেওয়া হবে না। করোনা সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ দেখা গিয়েছে কর্ণাটকে।

কর্ণাটকে ফের নতুন করে বেড়েছে করোনা সংক্রমণ। লকডাউনের নিয়ম বিধিতে বেশ কিছুটা শিথিলতা এলে সংক্রমন বাড়তে দেখা গিয়েছে। এক রাজ্য থেকে অন্য রাজ্যে আসা যাওয়ায় তা হু-হু করে বাড়ছে।

বৃহস্পতিবার, কর্ণাটকে নতুন করে ৭৫ জন করোনা সংক্রমিত হয়েছেন। রাজ্যে মোট সংখ্যা ২,৪৯৩ জন।
৫৬,৯৪৮ সংক্রমণ নিয়ে দেশে শীর্ষস্থানে রয়েছে মহারাষ্ট্র। গুজরাত ১৫০০০ বেশি সংক্রমণ দেখা গিয়েছে, তামিলনাডুতে ১৮,৫৪৫ জন, মধ্যপ্রদেশে ৭,২৬১ জন এবং রাজস্থানে ৭,৭০৩ জন।

বর্তমানে মহারাষ্ট্র, দিল্লি, গুজরাত, রাজস্থানের পাশাপাশি খারাপ অবস্থা তামিলনাডুর। বৃহস্পতিবার নতুন করে ৮২৭ জন করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন। ওই রাজ্যে বর্তমানে মোট সংক্রমণ ১৯,৩৭২।

পরিস্থিতিতে নজর দিয়ে আরও জানানো হয়েছে, দেশীয়ভাবে পাঁচ লাখ টেস্ট করা হবে। ৩২০টি কোম্পানি এই কাজ করবে বলেই জানা গিয়েছে।

এছাড়াও এদিন ভারত সরকারের তরফে জানানো হয়েছে, দেশে ৮৬,১১০ জন মেডিক্যাল পর্যবেক্ষণে রয়েছেন, সুস্থ হয়েছেন ৬৭,৬৯১ জন। শেষ ২৪ ঘণ্টায় ৩,২৬৬ কোভিড রোগী সুস্থ হয়েছেন। বর্তমানে সুস্থ হওয়ার হার ৪২.৭৫ শতাংশ।

করোনা ভাইরাস তাড়া করছে গোটা দেশকে। তবে দেশের ৭০ শতাংশ Covid-19 ঘটনা দেখা গিয়েছে মাত্র ১৩টি শহরে, এমন তথ্যই পাওয়া গিয়েছে সরকারি সূত্রে।

এদিকে ১ জুন থেকে রাজ্যে মন্দির-মসজিদ খোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্ণাটক। তবে ক্রমবর্ধমান এই সংখ্যায় তা কতটা সম্ভব হবে তা নিয়ে প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে।

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV