মাদ্রিদ: করোনার শিকার প্রাক্তন রিয়েল মাদ্রিদ প্রেসিডেন্ট৷ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন প্রাক্তন রিয়েল প্রেসিডেন্ট লরেঞ্জো স্যানজ৷ মারণ এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে কয়েকদিন ধরে হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন ফুটবলের এই ধনকুবের৷ শনিবার তাঁর মৃত্যু হয় ৭৬ বছরের প্রাক্তন এই রিয়েল মাদ্রিদ প্রেসিডেন্টের৷

১৯৯৫ থেকে ২০০০ স্প্যানিশ ফুটবল জায়েন্ট রিয়েল মাদ্রিদের প্রেসিডেন্ট ছিলেন লরেঞ্জো৷ তাঁর প্রেসিডেন্টশিপে দু’বার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতেছে রিয়েল মাদ্রিদ৷ বাবার মৃত্যুর খবর জানিয়ে স্যানজের ছেলে টুইটারে লিখেছেন বলেন, “My father has just passed away. He did not deserve this ending and in this way”.

বাবা ফুটবল ধনকুবের হলেও ছেলে জুনিয়র লরেঞ্জো স্যানজ হলেন একজন পেশাদার বাস্কেটবল প্লেয়ার৷ বাবার মৃত্যুর পর তিনি বলেন, ‘বাবা হলেন আমার দেখা সেরা পরিশ্রমী ব্যক্তি৷ পরিবার ও রিয়েল মাদ্রিদ ক্লাব ছিল তাঁর প্যাশন৷’ দিনতিনেক আগেই বাবার করোনা আক্রান্তের কথা জানিয়েছে ছিলেন লরেঞ্জো পুত্র৷ মারণ এই করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মাদ্রিদের হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন প্রাক্তন রিয়েল মাদ্রিদ প্রেসিডেন্ট৷

স্পেনের এই ক্লাবে ১৯৮০ শেষ দিকে প্রবেশ করেন লরেঞ্জো৷ তখন ক্লাবের প্রেসিডেন্টে ছিলেন রোমন ম্যানডোজা৷ কিন্তু ১৯৯৫ সালে ম্যানডোর উত্তরসূরি হিসেবে রিয়েল মাদ্রিদের প্রেসিডেন্ট হন লরেঞ্জো৷ তাঁর প্রেসিডেন্টশিপে জুপ হেনচেকসের কোচিংয়ে রিয়েল মাদ্রিদে খেলেছেন কিংবদন্তি ডেভর সুকর, রবার্তো কার্লোস, সডোর্ফ, রাউলের মতো তারকা৷ ১৯৯৮ সালে হেনচেকসের কোচিংয়ে চ্যাম্পিয়ন্সশিপ জেতে রিয়েল মাদ্রিদ৷ ফাইনালে জুভেন্তাসকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় রিয়েল মাদ্রিদ৷

চিনের উইয়ান প্রদেশে প্রথম দেখা মেলা করোনা নামক এই মারণ ভাইরাস থাবা বসিয়েছে সারা বিশ্বে৷ এখনও পর্যন্ত পৃথিবীতে এই ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৩ লক্ষ৷ মারা গিয়েছেন প্রায় সাড়ে ১১ হাজার মানুষ৷ মৃতের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি ইতালিতে৷ শিল্পের এই দেশে মারা গিয়েছেন ৪ হাজার মানুষ৷ শনিবারই ইতালিতে মারা গিয়েছেন প্রায় আটশো জন৷ স্পেনে করোনা ভাইরাসে মারা গিয়েছেন ১,৩২০ জন৷