তিমিরকান্তি পতি, বাঁকুড়া: করোনা পরিস্থিতিতে দীর্ঘ ৪ মাস বেতন না পেয়ে কর্মবিরতির ডাক দিলেন বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুর পুরসভার ১৫০ জন অস্থায়ী সহ ২০৪ জন সাফাই কর্মী। বকেয়া বেতনের দাবিতে শুক্রবার তারা পুরসভার দফতরের সামনে সাময়িক বিক্ষোভও দেখান।

শহরের জঞ্জাল সাফাই সহ অন্যান্য কাজের সঙ্গে যুক্ত কর্মীদের অভিযোগ, তাঁরা গত চার মাস ধরে কোনও বেতন পাননি। বকেয়া বেতনের দাবি জানালেও বারবার প্রতিশ্রুতি মিলেছে। কাজের কাজ কিছুই হয়নি। ফলে একপ্রকার বাধ্য হয়েই ১৫০ জন অস্থায়ী কর্মী ও ৫৪ জন স্থায়ী কর্মী কর্মবিরতির ডাক দিতে বাধ্য হয়েছেন বলে জানান।

এদিন কর্মবিরতির কথা ঘোষণা করে সাফাই কর্মী বিট্টু ডোম, পদ্মা মাদ্রাজিরা বলেন, চরম করোনা পরিস্থিতির মধ্যেও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে আমরা লাগাতার কাজ করে গিয়েছি। কিন্তু গত চার মাস কারও বেতন নেই। এই অবস্থায় পুর কর্তৃপক্ষের তরফে এক মাসের খাবার দেওয়া হলেও তা যথেষ্ট নয়। অন্য কোথাও কাজের সুযোগ নেই। কেউ কাজও দিতে চাইছেনা। ‘সাহেবে’র কাছে বকেয়া বেতন চাইতে গেলে উনি কাজ ছেড়ে দিতে বলছেন। এই অবস্থায় তারা কি খাবেন কোথায় যাবেন বলেও প্রশ্ন তোলেন।

এবিষয়ে পুর প্রশাসক শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় বলেন, অস্থায়ী কর্মীদের বেতন রাজ্য সরকার দেয়না। স্থায়ী কর্মীরা বেতন পাবেন। অস্থায়ী কর্মীদের প্রতি তিনি যথেষ্ট সহানুভূতিশীল জানিয়ে বলেন, করোনা পরিস্থিতিতেও তাদের স্বাস্থ্য সংক্রান্ত নিরাপত্তার কথা আমরা ভেবেছি। এর পরেও কারও অসুবিধা হলে তিনি কাজ ছেড়ে চলে যেতে পারেন বলে তিনি জানান।

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা