বেজিং ও জেনেভা: বিশ্ব জুড়েই ছড়িয়ে পড়ল করোনাভাইরাস। সেই সঙ্গে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা-হু যে ভয়ঙ্কর মহামারির সতর্কতা দিয়েছিল তার আশঙ্কা আরও বাড়ল। সাতটি মহাদেশের মধ্যে একমাত্র বরফে ঢেকে থাকা আন্টার্কটিকা ছাড়া বাকি মহাদেশগুলির বিভিন্ন দেশে এই মারণ ভাইরাসে সংক্রামিত রোগীর মৃত্যু হতে শুরু করেছে।

হু আগেই জানিয়েছে, করোনাভাইরাসের সাম্প্রতিক চেহারা শুধুমাত্র হিমশৈলের চূড়া মাত্র। অর্থাৎ হিমশৈলের বিরাট অংশ যেমন সাগরের জলে ডুবে থাকে, তেমনই করোনাভাইরাস তার ভয়াল রূপটি এখনো লুকিয়ে রেখেছে।

গত বছর ডিসেম্বর মাসে চিনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে করোনাভাইরাস চিহ্নিত হয়। সেই শুরু। তারপর ভাইরাস সংক্রমণে চিন মৃত্যুপুরী। ২৭৮৮ জনের মৃত্যু হয়েছে চিনেই।

এশিয়া থেকে ক্রমে বাকি মহাদেশগুলিতে ছড়িয়েছে করোনাভাইরাস। সিএনএন জানিয়েছে, এখন পর্যন্ত ৫০টির বেশি দেশে ভাইরাস সংক্রমণের খবর এসেছে। এই সব দেশগুলি ছড়িয়ে ইউরোপ, উত্তর ও দক্ষিণ আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়া, আফ্রিকা, ওশেনিয়া মহাদেশের

সেই অর্থে একমাত্র আন্টার্কটিকা বাদে সব মহাদেশেই ঢুকেছে করোনাভাইরাস।

বিবিসি জানাচ্ছে, চিনের বাইরে বিভিন্ন দেশ মিলিয়ে করোনাভাইরাস সংক্রামিত অন্তত ৭০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এই সংখ্যা আরও বাড়বে।

সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, ৮৩ হাজারের বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। শুক্রবার পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে মোট ২৮৫০ জনেরর বেশি রোগীর। তবে চিনে ভাইরাস সংক্রমণের হার কমছে বলেই জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

এত নজরে বিশ্ব জোড়া করোনা হামলা: (শুক্রবার পর্যন্ত)

এশিয়া- চিন, দক্ষিণ কোরিয়া, ইরান, জাপান, লাওস, মালয়েশিয়া, পাকিস্তান, ভারত, নেপাল সহ বিভিন্ন দেশ। তবে ভারত ও নেপালে ভাইরাস সংক্রামিতরা সুস্থ। দ. কোরিয়াতে আক্রান্ত হয়েছেন২২২২জন, মৃত ১৩ জন। ইরানে মারা গেছেন ২৬ জন। আক্রান্ত ২৪৫জন। জাপানে ২০২জন এতে আক্রান্ত হয়েছেন। জাপানে মৃত্যু হয়েছে আটজনের। হংকংয়ে ৯৩ জন ও সিঙ্গাপুরে ৯৬ জন আক্রান্ত। এছাড়া ইরাকে ৭ জন, ইজরায়েলে তিনজন, আফগানিস্তানে একজন আক্রান্ত । শ্রীলংকায় কয়েকজন সংক্রামিত।

ইউরোপ: ইতালিতে মারা গেছেন ১৭জন।আক্রান্তের সংখ্যা ৬৫০ জন।জার্মানিতে ২৩ জন আক্রান্ত। বেলারুশ, বেলজিয়াম, সুইজারল্যান্ড, অস্ট্রিয়া সহ বিভিন্ন দেশে ছড়াচ্ছে ভাইরাস। ক্রোশিয়া ডেনমার্ক, এস্তোনিয়া ও ফিনল্যান্ডে ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন কয়েকজন।

আফ্রিকা: আলজিরিয়া, মিশর ও নাইজেরিয়াতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সন্ধান মিলেছে।

অস্ট্রেলিয়া: অন্তত ২২ জনের শরীরে করোনা ভাইরাসের অস্তিত্ব ধরা পড়েছে।

দক্ষিণ আমেরিকা: ব্রাজিলে ধরা পড়েছে করোনা ভাইরাস সংক্রামিত রোগী।

উত্তর আমেরিকা: কানাডা তে ছড়িয়েছে ভাইরাস।কয়েকজন আমেরিকান সংক্রামিত।