হায়দরাবাদ: সমগ্র বিশ্ব কাঁপছে করোনা আতঙ্কে। ইতিমধ্যে মৃত্যু হয়েছে কয়েক হাজার মানুষের। আক্রান্তের সংখ্যা লক্ষাধিক। মারণ ভাইরাসের অ্যান্টোবায়েটিক তৈরির চেষ্টায় রয়েছে সব দেশের বিজ্ঞানীরা। তবে আশার আলো দেখাচ্ছে ভারত।

হায়দরাবাদ বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল বিজ্ঞানীর প্রচেষ্টায় হয়তো করোনা থেকে বিশ্বকে মুক্তি দিতে পারে ভারতই। সোনা ফলিয়েছে ভারতীয় বিজ্ঞানীদের নিরলস প্রচেষ্টা। জানা যাচ্ছে, করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন তৈরিতে তাঁরা অনেকটাই এগিয়ে গিয়েছেন৷

ওই বিশ্ববিদ্যালয়েরই বায়োকেমিস্ট্রির এক অধ্যাপক একটি ভ্যাকসিন আবিষ্কার করেছেন। যদি ওই ভ্যাকসিন সঠিক ভাবে কাজ করে তবে নিঃসন্দেহে তা মানব জাতির জন্য বড় আবিষ্কার হবে।

অন্যদিকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ‘হু’ জানিয়েছে করোনা ভ্যাকসিন তৈরির চেষ্টা চলছে। কিন্তু এক্ষেত্রে তাঁদের আশঙ্কা এই ভ্যাকসিন তৈরিতে ১ থেকে দেড় বছর সময় লাগবে।

বর্তমানে বিশ্বে ৬ লক্ষ মানুষ এই মারণ ভাইরাসের কবলে পড়েছেন। এদের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ২৭,৯৮২ জনের। নিঃসন্দেহে সংখ্যাটা ভয়ঙ্করতম। অন্যদিকে শনিবার রাত পর্যন্ত ভারতে কারণ আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১০০০। স্বাস্থ্যমন্ত্রক এই তথ্য জানালেও বেসরকারি মতে দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা আরো বেশি।

দেশের মধ্যে মহারাষ্ট্রে সবচেয়ে বেশি করোনা আক্রান্তের হদিস মিলেছে শনিবার রাত পর্যন্ত মহারাষ্ট্রে ১৮৬ জনের শরীরে কারণ আর সংক্রমণ ধরা পড়েছে। সংক্রমিত হওয়ার নিরিখে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে কেরালা। শনিবার রাত পর্যন্ত কেরালায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৮২।