কলকাতা: বাংলায় সুস্থ্যতার হার বেড়ে প্রায় ৯৭ শতাংশ৷ গত ২৪ ঘন্টায় রাজ্যে ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে৷ আক্রান্ত আরও ৭২৩ জন৷ তুলনামূলক টেস্ট কম৷

বুধবার সন্ধ্যায় রাজ্য স্বাস্থ্য ভবন বুলেটিনের তথ্য অনুযায়ী,একদিনে রাজ্যে মৃত্যু হয়েছে মঙ্গলবারও এই সংখ্যাটা একই ছিল৷ সোমবার ছিল ১৬ জন৷ সব মিলিয়ে বাংলায় মোট মৃতের সংখ্যাটা ১০ হাজার ছুঁইছুঁই৷ তথ্য অনুযায়ী, ৯ হাজার ৯৯৩ জন৷

এদের মধ্যে শুধু কলকাতায় মৃত্যু হয়েছে ৩,০৩১ জনের৷ আর উত্তর ২৪ পরগণায় ২,৪১৫ জন৷ একদিনে আক্রান্ত ৭২৩ জন৷ মঙ্গলবার ছিল ৭৫১ জন৷ তারফলে রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যাটা বেড়ে ৫ লক্ষ ৬২ হাজার ৭৯৫ জন৷ অ্যাক্টিভ আক্রান্তের সংখ্যাটা কমে ৭ হাজারের সামান্য বেশি৷

তথ্য অনুযায়ী,৭ হাজার ৩০৩ জন৷ মঙ্গলবার ছিল ৩৯২ জন৷ তুলনামূলক ৮৯ জন কম৷ স্বস্তির খবর,রাজ্যে একদিনে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৭৯৪ জন৷ মঙ্গলবার ছিল ৮৭৯ জন৷ সোমবার ছিল ৯৩৯ জন৷ সব মিলিয়ে রাজ্যে মোট সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৫ লক্ষ ৪৫ হাজার ৪৯৯ জন৷ আর সুস্থতার হার বেড়ে ৯৬.৯৩ শতাংশ৷ প্রায় ৯৭ শতাংশ৷ তবুও চিন্তা বাড়াচ্ছে মৃত্যুহার৷

১২ জানুয়ারির রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের তথ্য অনুযায়ী, বাংলায় মৃত্যুহার ১ দশমিক ৭৭ শতাংশ৷ তবে এই মূহুর্তে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন মাত্র ১,৮৩৪ জন৷ হোম আইসোলেশনে ৫,৫০০ জন৷ আর সেফ হোমে আছেন ৫৮ জন৷ এই পর্যন্ত বাংলায় করোনা নমুনা টেস্ট হয়েছে ৭৫ লক্ষের বেশি৷ তথ্য অনুযায়ী ৭৫ লক্ষ ২৭ হাজার ৯৪৪ টি৷ ফলে প্রতি ১০ লক্ষ জনসংখ্যায় টেস্টের সংখ্যা বেড়ে হল ৮৩,৬৪৪ জন৷

এই মুহূর্তে সরকারি এবং বেসরকারি মিলিয়ে রাজ্যে ১০০ টি ল্যাবরেটরিতে করোনা টেস্ট হচ্ছে৷ আরও ১ টি ল্যাবরেটরি অপেক্ষায় রয়েছে৷

বি: দ্র: – প্রতিদিন সন্ধ্যায় রাজ্য স্বাস্থ্য ভবন থেকে যে বুলেটিন প্রকাশিত হয়,সেখানে আগের দিন সকাল ৯ টা থেকে বুলেটিন প্রকাশিত হওয়ার দিন সকাল ৯ টা পর্যন্ত তথ্য উল্লেখ করা হয়৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।