লাগোস: কেউ লকডাউন ভেঙে রাস্তায় বেরোলেই গুলি করা হবে। এমনই. নির্দেশ দিয়েছেন ফিলিপাইনসের প্রেসিডেন্ট রডরিগো দুতার্তে। তবে তাঁর নির্দেশ বাস্তবায়িত হল সুদূর নাইজেরিয়ায়।

সরকারি নিয়ম ভেঙে লকডাউনের সময় বাড়ির বাইরে আসতেই নাইজেরিয়ার সেনা গুলি চালাল। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় এক যুবকের। ঘটনা ওয়ারি শহরের। স্থানীয় বাসিন্দা জোসেফ পেসুকে পরে সনাক্ত করা হয়েছে।

করোনাভাইরাস সংক্রমণ রুখতে নাইজেরিয়া সরকার অন্যান্য দেশের মতো লকডাউন চালাচ্ছে। সরকারের তরফে বলা হয়েছে, নিয়ম মেনে ঘরে থাকতে হবে। শনিিবার ওয়ার্ল্ডোমিটার জানিয়েছে, এই দেশে করোনায় মৃত ৪ জন, সংক্রামিত দুশো জনের বেশি। দেশটির বিভিন্ন শহর লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।

এএফপি ও আল জাজিরা জানাচ্ছে, নাইজেরিয়ার যে ডেলটার ওয়ারি শহরে লকডাউন চলছিল। এর মাঝে সরকারি হুঁশিয়ারি উপেক্ষা করে বাড়ি থেকে বের হওয়ায় জোসেফ পেসুক কে গুলি করে মেরে ফেলে সেনাবাহিনি।

এই ঘটনার পর শহরটিতে শুরু হয়েছে বিক্ষোভ। রাস্তায় নেমে স্থানীয় যুবকরা বেশ কিছু গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এই ঘটনার মাত্র একদিন আগে ফিলিপাইনসের সরকার জানিয়েছিল, করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে লকডাউন চলবে। ফিলিপিনো প্রেসিডেন্ট দুতার্তের নির্দেশ, গুলি করে মেরে ফেলা হবে।