ভোপাল: করোনা আক্রান্ত হয়েও রাজ্যসভার ভোটে অংশ নিলেন মধ্যপ্রদেশের এক কংগ্রেস বিধায়ক। পিপিই পোশাক পরে রাজ্য বিধানসভায় ভোট দিতে যান তিনি। যদিও বিজেপির তরফে করোনা আক্রান্ত কংগ্রেস বিধায়কের এহেন পদক্ষেপ নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়েছে। তবে সেসবে থোড়াই কেয়ার কংগ্রেস নেতা। দিব্যি ভোট দিলেন পিপিই পোশাক পরেই।

মধ্যপ্রদেশের কংগ্রেস বিধায়ক কুণাল চৌধরি। তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। রাজ্যসভার ২৪টি আসনে নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন মধ্যপ্রদেশের এই কংগ্রেস বিধায়ক।

পিপিই পোশাক পরে শুক্রবার রাজ্য বিধানসভায় ভোট দিতে যান তিনি। ১২ জুন ওই বিধায়কের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে।

শুক্রবার পিপিই পরে মধ্যপ্রদেশ বিধানসভায় ঢুকে ভোট দিয়েছেন কংগ্রেস বিধায়ক কুণাল চৌধরি। আতঙ্কে এদিন ওই বিধায়কের আশেপাশে যেতেও দেখা যায়নি বাকিদের।

প্রত্যেকেই আতঙ্কে ভুগছিলেন। এদিকে, ভোট দেওয়ার পর ওই বিধায়ক জানান, সুরক্ষার সব ব্যবস্থা নিয়ে পিপিই পোশাক পরে বিধানসভায় গিয়েচিলেন তিনি। ভোট প্রক্রিয়ায় যুক্ত আধিকারিকরাও প্রত্যেকে পিপিই পরে ছিলেন। দলের প্রার্থীকে ভোট দিয়েই বিধানসভা ছাড়েন ওই বিধায়ক।

এদিকে, করোনায় আক্রান্তকে কীভাবে ভোটদানের অনুমতি দেওয়া হল, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে বিজেপি। এমনকী নির্বাচন কমিশনকেও এব্যাপারে নালিশা জানিয়েছে বিজেপি। অতিমারী রোধে জারি থাকা আইন ভাঙার অভিযোগ তোলা হয়েছে কংগ্রেসের বিধায়ক কুণাল চৌধরির বিরুদ্ধে।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ