করোনা থেকে সাবধান
ফাইল ছবি

মস্কো: চিন থেকে করোনা ছড়িয়ে পড়ার পরেই কঠিন বর্মে নিজেকে রক্ষা করছিল প্রতিবেশী রাশিয়া। সেই বর্ম ভেদ করেই করোনার প্রবল সংক্রমণ শুরু রুশ দেশে। বিশ্বে দ্বিতীয় সর্বাধিক করোনা সংক্রামিত দেশ। আক্রান্তের সংখ্যা ২ লক্ষ পেরিয়ে গেলো।

বিবিসি জানাচ্ছে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পর সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ রাশিয়ায়। তবে এই সংখ্যা তুলনায় অনেক কম। রুশ সরকার জানিয়েছে সব মিলিয়ে রোগীর সংখ্যা এখন ২,৩২,০০০ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ১০,৮৯৯ নতুন রোগী শনাক্ত করা হয়েছে।

ওয়ার্ল্ডোমিটার জানাচ্ছে, রাশিয়ায় এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ২,১১৬ জনের। তবে সংক্রমণের হার প্রবল গতিতে বাড়ছে।বিবিসি ও রুশ সংবাদ সংস্থা ‘তাস’ জানাচ্ছে সবচেয়ে খারাপ অবস্থা রাজধানী মস্কোর। গত ২৪ ঘণ্টায় সেখানে ৫ হাজারেরও বেশি নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে।

গত বছর ডিসেম্বর মাসে করোনার হামলা হয়েছিল চিনে। তারপর সেই ভাইরাস বিশ্বজুড়ে মৃত্যুর মিছিল তৈরি করেছে। মঙ্গলবার পর্যন্ত মৃত ২ লক্ষ ৮৭ হাজারের বেশি। চিনের সীমান্ত লাগোয়া ১৪টি দেশের মধ্যে প্রথম থেকেই কড়া অবস্থান নেয় রাশিয়া। চিন-রুশ সীমান্ত বন্ধ হয় তড়িঘড়ি।

প্রথমে চিন ও পরে ইরানে হাজারে হাজারে মানুষের মৃত্যু হয়। তারপরেই ইউরোপে সংক্রমণের ধাক্কায় মৃত্যুর দেশ হয়েছে ইতালি, ফ্রান্স, স্পেন, ইংল্যান্ড, সহ অন্যান্য দেশগুলি।

প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছিল, একদম চিন লাগোয়া বলে রাশিয়াতেই প্রথম সংক্রমণ হবে বড় আকারে। কিন্তু সেই হিসেব উল্টে গেছে, ইউরোপ থেকে মার্কিন মুলুকে ঢুকে করোনা সেখানে মরণ তাণ্ডব চালাচ্ছে।ওয়ার্ল্ডোমিটার জানাচ্ছে, মঙ্গলবার পর্যন্ত আমেরিকায় ৮১ হাজার পেরিয়েছে মৃতের সংখ্যা।

এর পরেই বড়সড় মৃত্যু শুরু হয়েছে ফের ইউরোপে। ইংল্যান্ড এখন মৃত্যুর তালিকায় দ্বিতীয়। ওয়ার্ল্ডোমিটারের হিসেবে এখানে মৃত ৩২ হাজারের বেশি। এই পরিস্থিতিতে এবার রাশিয়ায় প্রবল সংক্রমণ শুরু করোনার।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও