রিয়াধ: মারণ করোনা থাবা বসিয়েছে এবার সৌদি আরবের রাজ পরিবারেও। রিয়াধের গভর্নর প্রিন্স ফয়সাল বিন-সহ ইউরোপ ফেরত সৌদি রাজ পরিবারের ১৫০ জনের শরীরে মারণ ভাইরাসের সংক্রমণ ছড়িয়েছে বলে জানা গিয়েছে। আক্রান্তদের মধ্যে রয়েছেন সৌদি রাজ পরিবারের দুই যুবরাজও।

গোটা বিশ্বে থাবা বসিয়েছএ মারণ ভাইরাস করোনা। এবার সৌদি আরবের রাজ পরিবারেও মারণ ভাইরাসের থাবা। জানা গিয়েছএ, ইতিমধ্যেই রাজ পরিবারের ১৫০ সদস্য করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। সৌদি রাজ পরিবারের বেশ কয়েকজন সম্প্রতি ইউরোপে বেড়াতে গিয়েছিলেন। তাঁরাই করোনার সংক্রমণ নিয়ে দেশে ফেরেন। পরে তাঁদের থেকেই পরিবারের অন্যদের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে করোনার সংক্রমণ।

জানা গিয়েছে, রাজ পরিবারের করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য ইতিমধ্যেই ৫০০ বেডের একটি বিশেষ হাসপাতাল তৈরির কাজ চলছে যুদ্ধকালীন তৎপরতায়। রাজ পরিবারে করোনা আক্রান্তদে ২৪ ঘণ্টা দেখভাল করছেন দেশের খ্যতনামা চিকিৎসকরা।

বিশেষ ওই হাসপাতালে আধুনিক চিকিৎসার সবরকম ব্যবস্থা রাখা হচ্ছে। একইসঙ্গে রাজ পরিবারের সদস্যদের জন্য হাসপাতালে থাকছে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থাও।

জানা গিয়েছে, রাজ পরিবারের সদস্য ছাড়াও পরিবারের ঘনিষ্ঠদের মধ্যে যদি নতুন করে আরও কেউ করোনা আক্রান্ত হন, তবে তাঁরও চিকিৎসা হবে বিশেষ ওই হাসপাতালে। সংযুক্ত আরব আমিরশাহীতে ক্রমেই ভয়াবহ পরিস্থিতি তৈরি করছে কোভিড-19-এর সংক্রমণ।

করোনা সংক্রমণ থেকে বাঁচতে ইতিমধ্যেই একাধিক সতর্কতামূলক পদক্ষেপ করেছে সৌদি প্রশাসন। রিয়াধ, জেড্ডা, মক্কা, মদিনা-সহ একাধিক শহরে কার্ফু জারি করা হয়েছে। আগামী কয়েক সপ্তাহে সৌদি আরবে কয়েক হাজার মানুষ করোনা আক্রান্ত হতে পারেন বলে আশঙ্কা প্রশাসনের।