স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: করোনা সংক্রমণ রুখতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, দুজনের আবেদনেই সাড়া দিলেন বহরমপুরের কংগ্রেস সাংসদ অধীর রঞ্জন চৌধুরী। প্রধানমন্ত্রীর তহবিলে নিজের একমাসের বেতন ও মুখ্যমন্ত্রীর তহবিলে ত্রিশ লক্ষ টাকা দিলেন তিনি। দেশজুড়ে চলছে লকডাউন। মহামারী রুখতে কেন্দ্র- রাজ্য, উভয়ই ত্রাণ তহবিল গঠন করেছে। পশ্চিমবঙ্গের বাম বিধায়ক থেকে বিজেপি সাংসদ, সকলেই রাজ্যের ত্রাণ তহবিলে সাধ্যমত টাকা দিয়েছে।

বুধবার যুব তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে রাজ্যের তহবিলে এক কোটি টাকা দেয়। বৃহস্পতিবার বহরমপুরের সাংসদ তথা লোকসভার দলনেতা অধীর চৌধুরী কেন্দ্র-রাজ্য, দুই তহবিলের টাকা দিলেন। প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে নিজের এক মাসের বেতন, প্রায় দু লাখ টাকা দিয়েছেন তিনি। রাজ্যের তহবিলে দিয়েছেন ত্রিশ লক্ষ টাকা। দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা হু হু করে বাড়ছে।

এখনও পর্যন্ত ভারতে করোনা আক্রান্তের মৃত্যু হয়েছে ১৩ জনের। এদিনই করোনা মোকাবিলায় ১ লক্ষ ৭০ হাজার কোটি টাকার আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অবশ্য আগেই রাজ্যের জন্য দু’শো কোটি টাকার আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন।

কিন্তু সেই টাকা করোনা মোকাবিলায় যথেষ্ট নয় বলে মনে করেন মুখ্যমন্ত্রী। সেই কারণেই বুধবার ত্রাণ তহবিল গঠন করেছেন তিনি। আর্থিক সাহায্যের পাশাপাশি জিনিসপত্রের জন্যও আবেদন জানিয়েছেন তিনি।