প্রতীকী ছবি

প্রতীতি ঘোষ, হাবড়া: দিন যতই যাচ্ছে ততই বেড়ে চলেছে করোনা সংক্রমণের সংখ্যা। উত্তর ২৪ পরগনার হাবড়াতে দিনে দিনে বেড়ে চলেছে করোনা আক্রান্তের ঘটনা। এবার উত্তর ২৪ পরগনার হাবড়া ও আশোকনগরে নতুন করে এক সঙ্গে ২ জনের দেহে মিললো করোনা করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ।

হাবড়া পুরসভার ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের পল্লিমঙ্গল এলাকায় বছর ষাটের এক ব্যক্তি করোনা পজেটিভ হওয়ার খবর ছড়াতেই নতুন করে আতঙ্ক ছাড়ায় হাবড়াবাসীর মধ্যে। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, আক্রান্ত ব্যক্তি লকডাউনের মধ্যেও বেলেঘাটা ফুলবাগানে নিজের দশকর্মার দোকানে যাতায়াত ছিল।

গত ২০ তারিখ জ্বর নিয়ে বাড়িতে ফেরেন। তারপর থেকেই অসুস্থ হয়ে পড়েন। ২৩ তারিখ লালারস টেস্ট করতে দেওয়া হয়। বুধবার রাতে ওই ব্যক্তির রিপোর্টে করোনা পজেটিভ ধরা পড়ে। বৃহস্পতিবার সকালে তাকে বারাসত করোনা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। প্রশাসনের তরফে আক্রান্ত ব্যক্তির বাড়ি এবং এলাকায় সেনিটাইজ করা হয়।

পাশপাশি বাড়ির নয় সদস্যকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয় স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে। পাশাপাশি ভিন রাজ্য থেকে বাড়ি ফিরে করোনা আক্রান্ত হলেন বছর পঁচিশ এর এক যুবক। ঘটনাটি অশোকনগর কল্যাণগড় পুরসভার ২৩ ওয়ার্ডের বনবনিয়া নতুনপাড়া এলাকার।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, গত ২২ তারিখ মুম্বই থেকে তিনি বাড়ি ফেরেন। ২৩ তারিখ হাবড়া হাসপাতালে তার লালা রস টেস্ট হয়। বুধবার তার খবর ওই যুবক করোনা পজেটিভ। স্থানীয় সূত্রে জানা যায় ওই যুবক ও তার ভাই মুম্বইয়ের একটি হোটেলে কাজ করতেন।

দীর্ঘ দিন লকডাউনের কারণে তারা মুম্বইয়ে আটকে ছিলেন সম্প্রতি ওই যুবক অশোকনগরের বাড়ি ফেরেন। বৃহস্পতিবার দুপুর পর্যন্ত আক্রান্ত যুবক নিজের বাড়িতেই গৃহবন্দি হয়ে আছেন। এই বিষয় নিয়ে অশোকনগর কল্যাণগড় পৌরসভা পুর প্রশাসক প্রবোধ সরকার জানান স্বাস্থ্য বিভাগের সঙ্গে কথা বলে যাবতীয় ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে ।

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।