নয়াদিল্লি: করোনার ওষুধ ইটোলিজুমাব প্রয়োগে দারুণ সাড়া মিলছে। ওষুধ প্রস্তুকারক সংস্থার দাবি, এই ওষুধ ব্যবহারে রোগীর শরীরে অক্সিজেন মাত্রা বাড়ছে। এমনকী এই ওষুধ প্রয়োদের পর কমেছে মৃত্যুর হারও। পরীক্ষায় দেখা গিয়েছে ৩০ জন রোগীকে এই ওষুধ দেওয়ার পর তাঁদের ২০ জনেরই শারীরিক পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে।

ইতিমধ্যেই ভারতীয় সংস্থা বায়োকনের তৈরি ওষুধ ইটোলিজুমাব করোনা আক্রান্তদের ওপর প্রয়োগের জন্য ড্রাগস কন্ট্রোলার জেনারেল অফ ইন্ডিয়ার অনুমতি পেয়েছে। সংস্থার দাবি, অচিরেই তাঁদের তৈরি এই ওষুধ করোনা চিকিৎসায় এক নয়া দৃষ্টান্ত স্থাপন করবে।

জানা গিয়েছে, বায়োকনের এই ইঞ্জেকশনের প্রতিটি ডোজের দাম পড়বে ৮০০০ টাকা। এই ওষুধের একটি সম্পূর্ণ কোর্স করতে রোগীর পরিবারের ৩২ হাজার টাকা খরচ পড়বে।

গোটা দেশে লাফিয়ে বাড়ছে করোনার সংক্রমণ। গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ২৮ হাজার ৪৯৮ জন। নতুন করে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৫৫৩ জনের।

সব মিলিয়ে মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দেওয়া আপডেট অনুযায়ী দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৯ লক্ষ ৬ হাজার ৭৫২। দেশে করোনায় মৃত বেড়ে ২৩ হাজার ৭২৭।

এর আগেই হায়দরবাদের সংস্থা ভারত বায়োটেকের তৈরি কোভ্যাক্সিন ও আহমেদাবাদের সংস্থা জাইডাস-ক্যাডিলার তৈরি জাইকোভ-ডি হিউম্যান ট্রায়ালের অনুমতি পেয়েছে। পরীক্ষার নির্ধারিত স্তরগুলি পেরোলে ওই দুই সংস্থার তৈরি ওষুধও করোনা চিকিৎসায় নয়া পথ দেখাতে পারে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ