রোম ও মাদ্রিদ: বিশ্ব বিচ্ছিন্ন। ভাঙছে অর্থনৈতিক শৃঙ্খল। এর পিছনে অদৃশ্য ঘাতকের অট্টহাসি। তার মরণ তাণ্ডবে বিশ্বের সর্বাধিক শক্তিশালী প্রাণী হিসেবে গর্ব করা মানুষ মরছে পিলপিল করে। এটাই বাস্তব। এটাই ভয়াবহ পরিস্থিতি।

করোনাভাইরাস হামলায় প্রতি মুহূর্তে বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। বৃহস্পতিবার পর্যন্ত বিশ্বজুড়ে মৃতের সংখ্যা ২১ হাজারের বেশি। আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪ লক্ষের ও অধিক।

জনসংখ্যা ও অংকের নিরিখে এই তথ্য যতটা উদ্বেগজনক তার থেকেও বেশি চিন্তার এই ভাইরাসের প্রতিষেধক না বের হওয়ায় দ্রুত হারে ছড়িয়ে পড়া। সেই কারণেই বিশ্ব জোড়া যাতায়াত বন্ধ। এই অবস্থা চলতে থাকলে, আগামী এক মাসের মধ্যে দুনিয়ায় আর্থিক মন্দা অবসম্ভাবী।

ইতালি ও স্পেনেই মৃত্যুর হার চিনের তুলনায় বেশি। দুটি দেশ মিলিয়ে ৯ হাজারের কাছাকাছি মৃত।

ওয়ার্ল্ডোমিটার যে তথ্য দিচ্ছে তাতে সর্বশেষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন বিশ্বের ৪ লক্ষ ৭১ হাজার ৩৬৩ জন। মৃত ২১ হাজার ২৯৪ জন। সুস্থ হয়েছেন ১ লক্ষ ১৪ হাজার ৬৪২ জন। ৩ লক্ষ ৩৩ হাজার ৪৮৭ জন চিকিৎসাধীন।

এদিকে এশিয়া ছাড়িয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসের প্রবল হামলা, মৃতের সংখ্যা ৯৪৭ জনে পৌঁছেছে। আক্রান্তের সংখ্যা পৌঁছেছে ৬৮ হাজার ৫৭১ জন।

আরও গুরুত্বপূর্ণ, গত ডিসেম্বরে করোনা ছড়িয়েছিল চিনের হুবেই প্রদেশের উহান শহর থেকে। প্রায় ৪ হাজারের কাছাকাছি মারা যান চিনে। সেখানেই করোনা হামলা কমেছে। সেই সঙ্গে কমেছে মৃত্যুর হার। বেড়েছে সুস্থতার সূচক।