ফাইল ছবি

নয়াদিল্লি: একটানা লকডাউনেও সংক্রমণ থেমে নেই। লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। দেশবাসীকে ঘরবন্দি রেখেও রোখা যায়নি ভাইরাসের গতিবেগ। বিশেষজ্ঞদের মতে ভারতে শুরু হয়েছে করোনার গোষ্ঠী সংক্রমণ। মারণ এই ভাইরাসের গোষ্ঠী সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার জেরেই করোনার সংক্রমণের নিরিখে ভারত বিশ্বে সপ্তম স্থানে পৌঁছে গিয়েছে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তথ্য অনুযায়ী সোমবার সন্ধে পর্যন্ত দেশে নোভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ১ লক্ষ ৯০ হাজার ৫৩৫। দেশে করোনায় মৃত বেড়ে ৫৩৯৪। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ইতিমধ্যেই দেশে শুরু হয়ে গিয়েছে করোনার গোষ্ঠী সংক্রমণ। তার জেরেই দ্রুত বাড়ছে আক্রান্তের পরিমাণ।

এরই মধ্যে সোমবার থেকে দেশে শুরু হয়েছে আনলক. ১। অর্থনীতির হাল ফেরাতে স্বাভাবিক করা হচ্ছে সমস্ত পরিষেবা। শিথিল করা হয়েছে বেশির ভাগ নিয়ম। কন্টেনমেন্ট জোনগুলিতে কড়াকড়ি থাকলেও অন্যত্র পরিষেবা স্বাভাবিক করার চেষ্টা চলছে।

ধীরে ধীরে স্বাভাবিক ছন্দে ফিরতে গিয়ে একসঙ্গে বহু মানুষ বাইরে বেরোচ্ছেন। এভাবেই করোনার সংক্রমণ এবার বিদ্যুৎগতিতে ছড়িয়ে পড়ারও আশঙ্কা করা হচ্ছে। সেই কারণেই সামাজিক দূরত্ব মেনে চলা-সহ সব ধরনের সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিয়েই বাইরে বেরোতে আবেদন করছেন বিশেষজ্ঞরা।

দেশজুড়ে শুরু আনলক. ১ তৎপরতা। ঠিক এই পরিস্থিতিতেই চোখ রাঙাচ্ছে মারণ করোনা। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সমীক্ষায় ভারত করোনা আক্রান্তের সংখ্যার নিরিখে ইতালির পরেই বিশ্বের মধ্যে সপ্তম স্থানে উঠে এসেছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সমীক্ষায় গোটা পৃথিবীতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যায় শীর্ষে রয়েছে আমেরিকা। তারপরেই রয়েছে ব্রাজিল, রাশিয়া, ব্রিটেন, স্পেন ও ইতালি। সপ্তম স্থানে রয়েছে ভারত।

দেশে চতুর্থ লকডাউন শেষে শুরু হয়েছে আনলক. ১। ধীরে ধীরে লকডাউন থেকে বেরিয়ে এসে স্বাভাবিক জীবন ফিরিয়ে আনার চেষ্টা চলছে দেশজুড়ে। তবে তারই মধ্যে রোজ করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যু বেড়ে চলার পরিসংখ্যানে উদ্বেগ আরও বাড়িয়েছে।

গোটা পৃথিবীতে আমেরিকাতেই করোনা আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। ডোনাল্ড ট্রাম্পের দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৮ লক্ষ ছাড়িয়ে গিয়েছে। সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার নিরিখে তারপরেই রয়েছে ব্রাজিল।

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV