বর্ধমান: ফের বর্ধমানে করোনা পজিটিভ। এবার মেমারীতে ২২ বছরের যুবক আক্রান্ত হলেন। জেলাশাসক বিজয় ভারতী জানিয়েছেন, আক্রান্ত যুবককে দুর্গাপুরের শনকা কোভিড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গোটা এলাকাকে কন্টেনমেন্ট জোন ঘোষণা করা হয়েছে।

তিনি জানিয়েছেন, ওই যুবকের কলকাতার আমরিতে ২৮ তারিখ অপারেশন হয়। ৬ তারিখ ছাড়া পেয়েছিলেন। এরপর অসুস্থ হলে ৭ তারিখ স্যাম্পেল পাঠানো হয়। আজ পজেটিভ রিপোর্ট আসে। এরই পাশাপাশি খন্ডঘোষের বাসিন্দা কলকাতা একটি থানার গাড়ি চালক এক ব্যক্তিরও করোনা ধরা পরেছে বলে জেলাশাসক জানিয়েছেন। তিনি গত ২৬ এপ্রিল খন্ডঘোষ থেকে কলকাতায় ফেরেন। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এ ব্যাপারেও খোঁজখবর নেওয়া চলছে।

প্রসঙ্গত, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে৷ একই সময়ে নতুন করে আরও ১৩০ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন৷ শুক্রবার সন্ধ্যার বুলেটিনে এই তথ্য জানিয়েছে রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতর৷ স্বাস্থ্য দফতর বুলেটিনের তথ্য অনুযায়ী এই পর্যন্ত রাজ্যে করোনা পজিটিভ রোগীর মৃত্যু হয়েছে ১৬০ জনের৷ এর মধ্যে কো-মর্বিডিটির (অন্যান্য রোগভোগ) কারণে মৃত্যু হয়েছে ৭২ জনের৷

ফলে কোভিড-১৯ এ পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৮৮ জনের৷ এই মুহূর্তে রাজ্যের করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১,৬৭৮ জন৷ এর মধ্যে অ্যাক্টিভ করোনা আক্রান্ত ১,১৯৫ জন৷ বৃহস্পতিবার রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ১,৫৪৮ জন৷ তার মধ্যে অ্যাক্টিভ আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ১,১০১ জন৷ শুক্রবার পর্যন্ত সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গিয়েছেন ৩২৩ জন৷ শতাংশের হিসেবে যা ১৯.২৫% ৷

doctor-3

বৃহস্পতিবার এই সংখ্যাটা ছিল ২৯৬ জনে৷ শতাংশের হিসেবে ছিল ১৯.১২%৷ রাজ্যে মৃত্যু এবং আক্রান্ত এই দুউয়ের সংখ্যাই বাড়ছে৷ ফলে উদ্বেগ আরও বাড়ছে৷ বৃহস্পতিবারে রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতরের তথ্য অনুযায়ী ২৪ ঘন্টায় মৃতের সংখ্যা ছিল ৭৷ আর তারপরের ২৪ ঘন্টায় সংখ্যাটা গিয়ে দাঁড়াল ৯৷ অন্যদিকে বৃহস্পতিবারে বুলেটিনে ২৪ ঘন্টায় আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৯২ জন৷ তারপরের ২৪ ঘন্টায় সংখ্যাটা হল ১৩০৷ শুক্রবারের রাজ্যের বুলেটিন প্রকাশ, রাজ্যে মোট করোনা টেস্টের সংখ্যা ৩৫ হাজার ৭৬৭৷

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ