ফাইল ছবি

ঢাকাঃ  বাংলাদেশে বড়সড় দেহ ব্যবসার পর্দাফাঁস। বডি ম্যাসাজের আড়ালে রমরমিয়ে দেহ ব্যবসা চালানোর অভিযোগ। গোপন সূত্রে হানা দিয়ে ওই স্পা সেন্টার থেকে পাঁচ মহিলা সহ পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সবাইকেই আপত্তিকর অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে বলে খবর।

ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে। জানা গিয়েছে, রাতে গুলশান-১ এর নাভানা টাওয়ারের লেভেল ২২/এ অভিযান চালায় বাংলাদেশের স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন। প্রশাসনের কাছে খবর আসে যে, রাজধানীর গুলশানে নাভানা টাওয়ার ‘হিজামা থেরাপি সেন্টার অ্যান্ড বডি ম্যাসাজ’ নামের একটি স্পা সেন্টারে চলছে দেহ ব্যবসা।

এরপরেই সেখানে অভিযান চালানো হয়। আর সেখানে ঢুকেই চক্ষুচড়ক স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনের। দেখা যায় আইনকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে রমরমিয়ে চলছে দেহ ব্যবসা। হাতেনাতে করা হয় গ্রেফতার।

পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে যে, থেরাপি সেন্টারের আড়ালে দীর্ঘদিন ধরে এখানে ঢাকার বিভিন্ন স্থান থেকে উঠতি বয়সের তরুণী ও মহিলাদের একত্রিত করে দেহ ব্যবসা চলছিল।

সংস্থার আড়ালে চলছিল এই ব্যবসা। নির্দিষ্ট খবর আসে। আর সেই খবরের ভিত্তিতেই চলে এই অভিযান। ইতিমধ্যে ধৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন।

জিজ্ঞাসাবাদে ধৃতরা সেখানে দেহ ব্যবসা চলছিল বলে স্বীকার করে নিয়েছে বলে জানানো হয়েছে পুলিশের তরফে।

প্রতীকী ছবি

ধৃতদের বিরুদ্ধে একাধিক ধারায় মামলা রুজু করেছে পুলিশ।

অন্যদিকে, ক্রমশ বাড়ছে করোনার সংক্রমণ। বাংলাদেশেও সংক্রমণ বাড়তে থাকছে। এই পরিস্থিতিতে সংক্রমণ থেকে বাঁচতে সোশ্যাল ডিসটেন্স, মাস্ক পড়ার কথা বলা হচ্ছে। সেখানে কীভাবে দেহ ব্যবসা চলছিল তা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন।

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।