শিলিগুড়ি: উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতে ক্রমেই করোনার সংক্রমণ বাড়ছে। দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি থেকে শুরু করে কোচবিহার, মালদহ, আলিপুরদুয়ার-সহ একাধিক জেলায় ছড়াচ্ছে সংক্রমণ। প্রতিদিন নতুন করে বহু মানুষ এই জেলাগুলিতে করোনা আক্রান্ত হচ্ছেন।

যা নিয়ে রীতিমতো উদ্বেগে রয়েছে স্বাস্থ্য দফতকর। উত্তরবঙ্গের সব কোভিড হাসপাতালগুলিতে প্রয়োজনীয় সব চিকিৎসা সরঞ্জাম মজুত করতে বাড়তি তৎপরতা নেওয়া হয়েছে।

জেলা প্রশাসনগুলিকে সঙ্গে নিয়ে উত্তরবঙ্গের করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় এবার বাড়তি তৎপরতা রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের। উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতে কোয়ারেন্টিন সেন্টার, সেফ হোম, আইসোলেশান সেন্টারের সংখ্যা বাড়ানো হচ্ছে।

কোভিড হাসপাতালেগুলিতে শয্যা সংখ্যা বাড়ানো হচ্ছে। কোভিড হাসপাতালগুলিতে ভেন্টিলেটরের সংখ্যা বাড়ানোর পাশাপাশি যাতে পর্যাপ্ত সংখ্যায় কৃত্রিমভাবে শ্বাস নেওয়ার যন্ত্রও মজুত রাখা যায় সেব্যাপারে তৎপরতা নিয়েছে স্বাস্থ্য দফতর।

রাজ্যজুড়ে করোনার সংক্রমণ ব্যাপকভাবে বাড়ছে। প্রতিদিন প্রায় ৩ হাজারের কাছাকাছি মানুষ নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। মঙ্গলবার স্বাস্থ্য দফতরের প্রকাশিত বুলেটিন অনুযায়ী দেখা গিয়েছে, ১০ আগস্ট পর্যন্ত উত্তরবঙ্গের ৮ জেলায় ১৪ হাজারের বেশি মানুষ নোভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

উত্তরবঙ্গের জেলায়-জেলায় ক্রমেই বিপজ্জনক চেহারা নিচ্ছে করোনা। উত্তরবঙ্গের জেলাগুলির মধ্যে সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ছড়িয়েছে দার্জিলিং ও মালদহ জেলায়।

গোটা রাজ্যেই ছড়াচ্ছে সংক্রমণ। বুধবার সকাল পর্যন্ত স্বাস্থ্য মন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী বাংলায় নোভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ১ লক্ষ ১ হাজার ৩৯০। রাজ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে ২ হাজার ১৪৯। এখনও পর্যন্ত ৭৩ হাজার ৩৯৫ জন করোনামুক্ত হয়েছেন।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও