শিলিগুড়ি: করোনা আতঙ্ক এবার এদেশেও। নেপালে করোনার জীবাণু মেলার পর থেকেই বাড়তি সতর্কতা এদেশেও। বাড়তি সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে ভারত-নেপাল সীমান্তে রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের উদ্যোগে মেডিক্যাল ক্যাম্প চালু করা হয়েছে। সীমান্তের চোকপোস্টে নজরদারি বাড়ানো হয়েছে। নেপাল থেকে যে পর্যটক বা অন্য মানুষজন কাজে ভারতে ঢুকছেন তাঁদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হচ্ছে। এলাকায় সচেতনতা বাড়াতে করা হচ্ছে মাইকিং।

চিন, হংকং-এ লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনার প্রকোপ। আক্রান্তের সংখ্যা হু হু করে বাড়ার পাশাপাশি চিনে বেড়েই চলেছে মৃত্যুর সংখ্যা। নেপালের বাসিন্দা এক ব্যক্তির শরীরেও মিলেছে করোনার জীবাণু। আর তাই ঝুঁকি নিতে নারাজ রাজ্য সরকারও। নেপালের কাছেই রয়েছে শিলিগুড়ি। প্রায়ই নেপাল থেকে পর্যটক বা অন্য বাসিন্দারা শিলিগুড়ি হয়ে ভারতে ঢোকেন। আর তাই শিলিগুড়ির পানিট্যাঙ্কিতে বাড়তি সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিয়েছে প্রশাসন। এলাকায় তিন চেকপোস্ট খোলা হয়েছে। মেডিক্যাল ক্যাম্প চালু করে নেপাল থেকে আসা ব্যক্তিদের উপর নজরদারি চালানো হচ্ছে। তাঁদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার ব্যবস্থা হচ্ছে।

সোমবার কলকাতাতেও করোনা আতঙ্ক দেখা দেয়। ভয়ঙ্কর চিনা ভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে এক চিনা তরুণীকে ভরতি করা হয়েছে বেলাঘাটা আইডি হাসপাতালে। রবিবার রাতে ওই তরুণীকে হাসপাতালে ভরতি করা হয়। হাসপাতাল সূত্রে খবর, ওই তরুণী চিন থেকে কলকাতায় বেড়াতে এসেছিলেন।

প্রথমে ইস্টার্ন মেট্রোপলিটন বাইপাসের কাছে একটি বেসরকারি হাসপাতাল থেকে ভরতি করা হয়েছিল ওই চিনা তরুণীকে। বেশি রাতে তাঁকে বেলেঘাটা আইডিতে নিয়ে আসা হয়। করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হিসেবে তাঁকে সন্দেহ করা হচ্ছে। তবে চিকিৎসার জন্য সমস্যা হয়ে দাঁড়াচ্ছে তাঁর ভাষা। আগে থেকেই কোনও রোগে ওই তরুণী আক্রান্ত হয়েছিলেন কি না তা জানার চেষ্টা করছেন চিকিৎসকরা। এদিকে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ থেকে শুরু রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের কেউই এই বিষয়ে মন্তব্য করতে চাননি৷ প্রসঙ্গত রাজ্যের উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ এবং কলকাতায় বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে নোভেল করোনা ভাইরাসে আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য ব্যবস্থা করা হয়েছে । উত্তরবঙ্গ মেডিক্যালে খোলা হয়েছে ৬ শয্যা বিশিষ্ট আইসোলেশন ওয়ার্ড।

করোনার প্রকোপে চিনে মৃত বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮০। আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ২,৩০০। ভারতে একশোর বেশি মানুষকে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।