হায়দরাবাদ: বাস এবং ট্রেনে ভিড়, ঝুলতে ঝুলতে যাওয়া এমন ছবি বহুবার নজরে পড়েছে অনেকের৷ এমনকি পাঁচজন-ছ’জন যাত্রীকে অটো-রিক্সাতেও যেতে দেখা গিয়েছে৷ কিন্তু তা বলে ২৪ জন! অবাক লাগছে? কিন্তু এমনটাই নাকি ঘটেছে তেলেঙ্গানায়৷ কিন্তু নিরাপত্তাকে উপেক্ষা করে কীভাবে এই অসাধ্য সাধন হল, সেই প্রশ্নও তুলছে অনেকে৷

জানা গিয়েছে, করিমনগরের পুলিশ কমিশনার সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও প্রকাশ করেন এবং তাঁর ক্যাপশন দেন, ‘নিজের নিরাপত্তার দায়িত্ব নিজেদেরই নেওয়া উচিত সকলের৷ নিরাপত্তাকে উপেক্ষা করে যাত্রীদের কখনোই এই ভিড় অটো-তে ওঠা উচিত নয়৷ এরপরই এই ভিডিওটি ভাইরাল হয়ে যায়৷’

২ মিনিট ৯ সেকেন্ডের এই ভিডিওটি ১৭ হাজারেরও বেশি ভিউ পায় খুব কম সময়ের মধ্যেই(প্রতিবেদন লেখার সময়)৷ লাইক এবং রিট্যুইটের সংখ্যাও বাড়তে থাকে হু হু করে৷ দেখা যায় তিমারপুরের ওই অটো-ড্রাইভারকে পুলিশ রাস্তার মাঝে থামিয়ে অতিরিক্ত যাত্রীবহনের জন্য জিজ্ঞাসাবাদ করতে থাকে৷

এই ভিডিও নিয়ে যেমন সমালোচনা চলতে থাকে সোশ্যাল মিডিয়ায় তেমনই অনেকে মজা করে লেখেন, ‘এমন ঘটনা একমাত্র ভারতেই দেখতে পাওয়া যায়৷ আবার অনেকে লেখেন, অনেক গ্রামে বাসিন্দাদের আর্থিক অবস্থা এতোটাই শোচনীয় যে তারা একটু টাকা বাঁচানোর জন্য এভাবে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত করে৷’

আরও একজন লেখেন, ‘এইভাবে যাতায়াত নিয়ম বিরুদ্ধ ঠিকই, তবে গ্রামে গিয়ে দেখা উচিত সেখানের বাসিন্দারা কীভাবে দারিদ্রের সঙ্গে লড়ছে৷ যাদের এতো কষ্ট করে যাতায়াত করতে হচ্ছে, তাদের জন্য সমবেদনা৷’ এভাবেই সোশ্যাল মিডিয়া থেকে সংবাদ মাধ্যমে ঘুরছে এই ভিডিও এবং খবর৷