দিনহাটা: ফুটপাথে হকারদের যবর দখলের ছবি কলকাতা থেকে কোচবিহার একইরকম। হকারদের জবর দখলের জেরে মুস্কিলে পড়েন যাত্রীরা, বাড়ে যানজটও। এই সমস্ত ঝামেলাকে মুক্ত করতে সাফাই কার্যে নেমে পড়ল কোচবিহার পুরসভা।
বুধবার সকাল থেকেই ভবানীগঞ্জ বাজার সংলগ্ন এলাকায় জবরদখল হঠানোর কাজ শুরু হয়৷  কিছু ব্যবসায়ীকে  দোকান সরিয়ে নিয়ে যেতেও দেখা যায়। বেশ কয়েক বছর ধরেই কোচবিহারের বিভিন্ন এলাকার ফুটপাত চলে গিয়েছে হকারদের দখলে৷ শহরের রাস্তা হয়ে উঠেছিল সংকীর্ণ। শেষপর্যন্ত হকার উচ্ছেদে নামতে হয় পুরসভাকে।  চেয়ারপার্সন রেবা কুণ্ডু বলেন “এই অভিযান চলবে”। তবে পুরসভার এই উদ্যোগে খুব একটা ভরসা পাচ্ছেন না সাধারণ মানুষ। তাঁদের বক্তব্য, এর আগেও ফুটপাতের হকার উচ্ছেদ হয়েছিল৷ নজরদারির অভাবে ফের হকারদের দৌরাত্ম বেড়ে গিয়েছে৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।