নয়াদিল্লি: ললিত ইস্যুতে ক্রমেই ধারালো হচ্ছে বিরোধীদের আক্রমণের ফলা৷ কিন্তু মুখে রা নেই প্রধানমন্ত্রীর৷ তাঁর এই মৌনতার বিরুদ্ধে সোমবার সুর চড়ালেন কংগ্রেস নেতা জয়রাম রমেশ৷ প্রধানমন্ত্রীকে ‘স্বামী মৌনেন্দ্র’ বলে তোপ দাগলেন তিনি৷ ললিত মোদীকে বললেন ‘ভাগোরা’৷

বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের পর রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী বসুন্ধরা রাজের সঙ্গে আইপিএল দুর্নীতিতে অভিযুক্ত ললিত মোদীর সম্পর্কের কথা ফাঁস হওয়ার পর বিজেপি-র বিরুদ্ধে আক্রমণের একটা সুযোগও হাতছাড়া করতে নারাজ কংগ্রেস৷ এদিন রমেশ বলেন, ‘তিনটে মিথ্যের উপর ধামাচাপা দিতে চাইছে বিজেপি ও বসুন্ধরা রাজে৷ প্রথমত, বসুন্ধরার সঙ্গে ললিত মোদীর বাণিজ্যিক সম্পর্ক ছিল৷ দ্বিতীয়ত, মরিশাস থেকে ২১ কোটি টাকা পেয়েছিলেন ললিত মোদী, যা বসুন্ধরার ছেলে দুষ্মন্তের কোম্পানিতে ঢেলেছিলেন তিনি৷ তৃতীয়ত, ব্রিটেন কর্তৃপক্ষের কাছে নিজের সই করা সাত পাতার ডকুমেন্ট পাঠিয়েছিলেন বসুন্ধরা৷’ এখানেই থেমে থাকেননি তিনি৷ বোমা ফাটিয়ে প্রকাশ্যে আনেন চতুর্থ ‘তথ্য’৷ তাঁর কথায় এই ‘ধারাবাহিকে’র নবতম পর্ব হল, ‘সরকারি সম্পত্তিকে ব্যক্তিগত সম্পত্তিতে বদলেছিলেন ললিত মোদী ও বসুন্ধরা রাজে৷’ এই বক্তব্যের সমর্থনে নির্দিষ্ট তথ্যপ্রমাণও পেশ করেন তিনি৷