হায়দরাবাদ: যোগ্যতার বিচারে নয়৷ কংগ্রেস প্রার্থী বাছাই করছে কোটি টাকার ভিত্তিতে৷ অভিযোগ করা সত্ত্বেও কাজ হয়নি৷ দলের সভাপতি রাহুল গান্ধীর কাছে চিঠিতে অভিযোগ জানিয়ে কংগ্রেস থেকে পদত্যাগ করলেন এআইসিসি’র প্রাক্তন সাধারণ সম্পাদক পি সুধাকর রেড্ডি৷

কংগ্রেস ক্রমশ নীতি ও মূল্যবোধের রাজনীতি থেকে সরে আসছে৷ যা অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক৷ এইভাবে চললে কোনওভাবেই দলের পরাজয় রোখা সম্ভব হবে না বলে দাবি করেন সুধাকর রেড্ডি৷ এদিন রাহুল গান্ধীকে সে কথা চিঠি দিনে জানান তিনি৷ চিঠিতে লেখেন, কংগ্রেসে যা চলছে তা মেনে নেওয়া যায় না৷ টাকা বদলে ভোটে লড়ার টিকিট দেওয়ার অভিযোগ আগেও উঠেছিল৷ ২০১৮-তে তেলেঙ্গানা বিধানসভা ও বিধান পরিষদের ভোটে তার আভাস মিলেছিল৷ ১৯শে তেলেঙ্গানা লোকসভায় লড়ার জন্য সেই অভিযোগই ফের সামনে আসছে৷

আরও পড়ুন: টিআরএসের প্রচারে সামিল ৪০টি দেশের প্রবাসীরা

এআইসিসি’র প্রাক্তন সাধারণ সম্পাদক পি সুধাকর রেড্ডি’র অভিযোগ, দলের এই হাল অত্যন্ত হতাশার৷ দলের প্রদেশ নেতৃত্বের কারণেই এই অবস্থা বলে দাবি তাঁর৷ টাকার বদলে দলের টিকিটের বিরোধীতা করে হাইকম্যান্ডকে জানালেও কোনও পদক্ষেপ করা হয়নি৷ এরপর দলে থাকার কোনও মানে হয় না বলে চিঠি দিয়ে রহুল গান্ধীকে জানান তিনি৷

আরও পড়ুন: মমতা’কে ‘গদ্দার’ বলে কটাক্ষ মুকুলে’র

পুলওয়ামার কারণ এয়ার স্ট্রাইকের সাফল্য নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে কংগেরেস সহ বিরোধীরা৷ বিষয়টিকে জাতীয়তাবাদের বিরোধীতা বলে প্রচারে বিজেপি৷ এই পরিস্থিতিতে কংগ্রেসের ঘর থেকেও উঠল সেই প্রশ্ন৷ সুধাকর রেড্ডি জানান, জানানজাতীয়তাবাদ বলতে কি বোঝায় তা নিয়ে বিভ্রান্ত কংগ্রেস৷ এই পরিস্থিতিতে স্বার্থবাজদের সঙ্গে কাজ করার কোনও দরকার নেই৷

কংগ্রেস সূত্রে খবর, সুধাকরের পদত্যাগ এখনও গ্রহণ করেনি দল৷