স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: আসন্ন কালিয়াগঞ্জ বিধানসভা উপ-নির্বাচনে তৃণমূলের দেওয়া জোটের প্রস্তাব উড়িয়ে দিল কংগ্রেস। বামেদের হাত ধরতেই আগ্রহী বলে জানান তারা। জেলা কংগ্রেস সভাপতি মোহিত সেনগুপ্ত বলেন, ‘তৃণমূলের সঙ্গে জোটের প্রশ্ন নেই। জোট হলে তা হবে বামেদের সঙ্গে।’ তাঁর দাবি, বিজেপি নয়, ২০২১-এ তৃণমূলকে সরিয়ে পশ্চিমবঙ্গের ক্ষমতায় আসবে বাম-কংগ্রেস জোট।

মোহিতবাবু বলেন, তৃণমূল আমাদের দল ভেঙেছে। আমরা ওদের ঘৃণা করি। ক্ষমতা থেকে চলে যাবে বুঝে আবার কংগ্রেসকে কাছে টানতে চাইছে। কালিয়াগঞ্জে প্রয়াত বিধায়কের কন্যা ধীতশ্রী রায়কে এবার প্রার্থী করেছে কংগ্রেস।

মঙ্গলবার রায়গঞ্জে জেলা তৃণমূল কার্যালয়ে সাংবাদিক বৈঠকে তৃণমূলের উত্তর দিনাজপুর জেলা সভাপতি কানাইয়ালাল আগরওয়াল বলেন, “লোকসভা নির্বাচনে কালিয়াগঞ্জ বিধানসভায় প্রায় কংগ্রেস ১৮ হাজার ভোট পেয়েছে। তৃণমূল কংগ্রেস প্রায় ৬১ হাজার ভোট পেয়েছিল। তাতেই বোঝা যায় আমাদের সংগঠন কংগ্রেসের তুলনায় যথেষ্ট মজবুত। তাই কালিয়াগঞ্জ বিধানসভা উপ নির্বাচনে আমাদের প্রার্থীকে সমর্থন করার জন্য কংগ্রসকে প্রস্তাব দেব।”

উল্লেখ্য ২০১৬-র বিধানসভা নির্বাচনে বামেদের সঙ্গে জোট করে কালিয়াগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রে জিতেছিল কংগ্রেস। গত মাসে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয় কালিয়াগঞ্জের বিধায়ক প্রমথনাথ রায়ের। লোকসভা নির্বাচনে এই রায়গঞ্জে বিপুল ভোটে জিতেছে বিজেপি।

এদিন কানাইয়ালাল আগারওয়াল বলেন, ‘বিজেপিকে ঠেকাতে হলে তৃণমূল প্রার্থীকেই কংগ্রেসের সমর্থন করা উচিৎ। লোকসভা নির্বাচনে নিজেদের দুর্গ রায়গঞ্জে ভরাডুবি হয়েছে কংগ্রেসের। তবে বিধানসভা নির্বাচনে এই আসনটি জেতার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী তারা।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.