সৌপ্তিক বন্দ্যোপাধ্যায় : ‘প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিজী দেশ বিক্রী করার পরিকল্পনা করছে’। আগামী ৯ আগস্ট ভারত ছাড়ো আন্দোলনের বর্ষপূর্তি। দিনটিকে স্মরনীয় করতে এমন দাবী নিয়েই পথে নামছে দক্ষিণ কলতাতা জেলা কংগ্রেসের কর্মীরা। ওই দিন বেলা ১২টায় হাজরা মোড় থেকে ইন্দিরা গান্ধীর মূর্তি পর্যন্ত একটি বর্ণাঢ্য মিছিল সংগঠিত করবে।

দক্ষিন কলকাতা জেলা কংগ্রেস কমিটির পক্ষে রক্তক্ষয়ী প্রদীপ প্রসাদ জানিয়েছেন , ‘আন্দোলনের মধ্যে দিয়ে স্বাধীনতা অর্জনের পর,দেশের মানুষের স্বপ্ন পূরনের লক্ষে কষ্টার্জিত এবং ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা করে কংগ্রেস সরকারের প্রধানমন্ত্রী জহরলাল নেহেরু যে সমস্ত রাষ্টায়ত্ত শিল্প স্হাপন করে ছিলেন ,এবং পরবর্তী প্রধানমন্ত্রীরা সে গুলো এগিয়ে নিয়ে আরও বড় আকারে পরিনত করেছিলেন ,আজ সেই সমস্ত প্রতিষ্ঠান গুলো মোদিজী বিক্রী করতে উদ্ধত হয়েছেন।’

তাঁরা জানাচ্ছেন , ‘পূর্বতন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী ব্যাঙ্ক এবং কয়লা খনি রাষ্ট্রায়ত্তকরন করেছিলেন। মোদিজী আজ সেই সব প্রতিষ্ঠান বেসরকারিকরণ করে চলেছেন। এই জনবিরোধী সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে “মোদিজী ভারত বিক্রী বন্ধ করো ” ব্যানার নিয়ে হবে কংগ্রেসের মিছিল’ নেতৃত্ব দেবেন প্রদেশ কংগ্রেস সদস্য জাহীদ হোসেন, সুবীর চৌধুরী, এ.আই.সি.সি সদস্য পলাশ ভান্ডারী,মনোরঞ্জন হালদার,রানা রায় চৌধুরী প্রমুখ।

কংগ্রেসের অভিযোগ, ‘দেশ অর্থনৈতিক সুনামীর দিকে চলেছে , জিডিপি গ্রোথ নিম্নগামী,রাষ্ট্রায়ত্ত শিল্প গুলি বেসরকারীকরণ করা হচ্ছ দ্রুতগামী ভাবে ,ব্যাঙ্ক,বীমা কয়লা ও বেসরকারীর পথে, বেকারত্বে হার আকাঁশ ছোঁয়া দ্রব্য মূল্য বৃদ্ধি মানুষের নাগালের বাইরে। মানুষের হাতে টাকা নেই।’ এই অবস্থায় আমরা জাতীয় কংগ্রেস কর্মী হয়ে যদি প্রতিবাদ না করি তাহলে মানুষ আমাদের ক্ষমা করবে না।’

রবিবার বেলা ১২টায় ,হাজরা মেড়ে জমায়েত হয়ে পায়ে পা মিলিয়ে ইন্দিরা গান্ধী আবক্ষ মূর্তির সামনে গিয়ে সভা করবে তাঁরা। জনবিরোধী প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে হবে ক্ষোভ প্রদর্শন।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও